Press "Enter" to skip to content

লেবানন সীমান্তে বাড়তি সেনা মোতায়েন ইসরাইলের

হিজবুল্লাহর সম্ভাব্য হামলার আশঙ্কায় লেবানন সীমান্তে বাড়তি সেনা বাড়ানোর ঘোষণা দিয়েছে অবৈধ ইহুদি রাষ্ট্র ইসরাইল। সেনাবাহিনীর উত্তরাঞ্চলীয় কমান্ডকে লেবাননে অতিরিক্ত বাহিনী হিসেবে পাঠানো হচ্ছে বলে শনিবার দেশটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

লেবানন সীমান্তে বাড়তি সেনা সমাবেশের একটি ফুটেজ টুইটারে প্রকাশ করেছে ইসরাইলি বাহিনী।

রয়টার্স জানিয়েছে, লেবাননের সশস্ত্র সংগঠন হিজবুল্লাহর সঙ্গে সাম্প্রতিক উত্তেজনার কারণে সামরিক বাহিনীর একটি প্রশিক্ষণও স্থগিত করেছে ইসরাইল।

এদিকে বৈরুতে সাম্প্রতিক ইসরাইলি ড্রোন হামলার কঠোর জবাব দেওয়ার হুশিয়ারি দিয়েছেন লেবাননের সশস্ত্র প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহ। দলটির মহাসচিব হাসান নাসরুল্লাহ বলেছেন, পাল্টা জবাব দেয়ার যে সিদ্ধান্ত তার সংগঠন নিয়েছে, তার কোনও নড়চড় হবে না।

ড্রোন হামলার জন্য ইসরাইলকে চরম মূল্য দিতে হবে বলে শনিবার রাতে এক টেলিভিশন ভাষণে এ হুশিয়ারি দেন তিনি।

এর আগে গত সপ্তাহে হিজবুল্লাহর সম্ভাব্য হামলার আশঙ্কায় লেবানন সীমান্তে জিপে সেনাবাহিনীর ম্যানিকিন বসিয়েছিল ইসরাইল।

হিজবুল্লাহর আল মানার টেলিভিশনে কাজ করেন আলী শোয়েব। টুইটারে তার পোস্ট করা ছবিতে দেখা যাচ্ছে, দুটি সামরিক যানে এসব ম্যানিকিন রাখা হয়েছে। একেবারে সামনে সেনাবাহিনীর উর্দির হলুদাভ ডামি বসানো রয়েছে।

লেবাননভিত্তিক শক্তিশালী সামরিক ও রাজনৈতিক সংগঠন হচ্ছে হিজবুল্লাহ। ১৯৮০-এর দশকে ইসরাইলের প্রথম আগ্রাসনের পর তাদের আবির্ভাব ঘটেছে।

হিজবুল্লাহর উপনেতা দীর্ঘদিনের শত্রুদের বিরুদ্ধে প্রতিশোধমূলক হামলা চালাতে পারে বলে ঘোষণা দেয়ার পর সীমান্তে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করেছে অবৈধ রাষ্ট্রটি।

শেয়ার অপশন: