ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ১২:৩৮ ঢাকা, বুধবার  ১৯শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

‘লাভ ইউ, মিস ইউ’ মৃত্যুর আগে হিউজের শেষ SMS

‘লাভ ইউ, মিস ইউ…লাভ ইউ, মিস ইউ’। মৃত্যুর কিছুদিন আগে মুঠোফোনে প্রিয় বান্ধবী মেগান সিম্পসনকে বার্তা পাঠিয়েছিলেন সদ্য প্রয়াত অস্ট্রেলিয়ান ক্রিকেটার ফিলিপ হিউজ। এমন বার্তার পরও দু’জনের সর্ম্পকটা শুধুই বন্ধুত্ব ছিলো বলে জানিয়েছেন মেগান। তবে মনে মনে মেগানকে খুব ভালোবাসতেন হিউজ। উপরের মুঠোবার্তাটি কিন্তু তেমনই ইঙ্গিত দিচ্ছে। তবে হিউজের মৃত্যুর পর ইঙ্গিত নয়, মেগানকে অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক ব্যাপারটি খোলাসা করেছেন স্পষ্টভাবে, ‘হিউজ তোমাকে সত্যিই খুব বেশি ভালোবাসতো মেগান।’
প্রায় তিন বছর আগে সিডনিতে পরিচয় হয় হিউজ ও মেগানের। এরপর খুব দ্রুতই বন্ধুত্বের সর্ম্পকে জড়িয়ে পড়েন তারা। এক সঙ্গে ঘুড়তে যাওয়া, কপি খাওয়া, লাঞ্চ বা ডিনার করা, শপিং করা, ফোনে কথা বলা ছাড়াও আরও অনেক কিছুই তাদের এক সাথে হতো। তাদের সর্ম্পক দেখে বোঝার উপায় ছিল না, তাদের মধ্যে বন্ধুত্ব নাকি ভালোবাসা। তবে দু’জনের সর্ম্পকের শুরুর পরিচয়টা মিথ্যেই বলেছিলেন হিউজ। নিজেকে কি হিসেবে পরিচয় দিয়েছিলেন হিউজ? এ ব্যাপারে মেগান বলেন, ‘হিউজ আমাকে ওর পরিচয় দিয়েছিলো ব্যাংকার হিসেবে। ও ব্যাংকে চাকরি করে বলেছিলো। তখনও আমি জানতাম না হিউজ যে ক্রিকেট খেলে।’
বন্ধুত্বের সর্ম্পকটা ধীরে ধীরে ভালোবাসায় রুপ নিচ্ছিলো। এটি ভালোই আন্দাজ করতে পেরেছিলেন হিউজ-মেগান। তবে সর্ম্পকটি স্থায়ীভাবে ভালোবাসায় রুপ দিতে দু’জনই সময় চেয়েছিলেন। কেন! অবাক হওয়ার মত বিষয়টির উত্তরে মেগান বলেন, ‘তখন খারাপ একটি বিচ্ছেদ কাটিয়ে উঠেছিলাম আমরা। সবকিছু স্বাভাবিক হতে আরও সময় প্রয়োজন ছিল। তাই তাড়াতাড়িই কোন সর্ম্পকে জড়াতে চাইনি। নতুন করে কেউ কাউকে কষ্ট দিতে চাইনি। তবে ফিলিপ বলেছিলো, চিরকাল আমাকে ওর পাশে দেখতে চায়। সবসময় আমার সাথে থাকতে চায়।’
হিউজের সাথে অনেক সময় কাটিয়েছেন মেগান। মূর্হুতগুলো মাঝে মাঝে অন্তরঙ্গও ছিল। তাই হিউজ-মেগানের স্মৃতির পাতাগুলো খুব বেশিই ভারী। হিউজকে যেহেতু খুব কাছ থেকে দেখেছেন, তাই বন্ধুর আচার-ব্যবহার সর্ম্পকে বেশ ভালোই জানেন মেগান, ‘হিউজ সবসময় খুবই মজা করতো। হাসি-খুশী থাকতো। কখনো মন খারাপ করে থাকতো না হিউজ। আমাকে অনেক বেশি সময় দিতো ও। যখন তখন আমার সাথে দেখা করতো। হিউজের মত ভালো বন্ধু হয় না। শুধু ভালো বন্ধুই না, ও খুব ভালো মানুষও।’
হিউজের ব্যাপারে মেগানের ধারনা ইতিবাচক, মনের টানও ছিলো বেশ। তবে পরবর্তীতে সর্ম্পকটা কি আসলেই বন্ধুত্ব ছিলো নাকি ভালোবাসায় রুপ নিয়েছিলো! দু’জনের সর্ম্পকের বিষয়টি আবেগীভাবেই উত্তর দেন মেগান, ‘তার ও আমার সর্ম্পকটা বন্ধুত্বের মধ্যেই ছিল। তা কখনো বন্ধুত্বের সীমা অতিক্রম করেনি।’
মেগান জানেন হিউজের সাথে তার সর্ম্পকটা বন্ধুত্বের। কিন্তু মেগান কি কখনো আঁচ করতে পেরেছিলেন হিউজ তাকে ভালোবাসে? হয়তো পারেননি মেগান। তবে মেগানকে যে হিউজ ভালোবাসতেন, তা স্পষ্ট করলেন ক্লার্ক নিজেই। হিউজের মৃত্যুর পর মেগানকে উদ্দেশ্য করে ক্লার্ক বলেন, ‘হিউজ তোমাকে সত্যিই খুব বেশি ভালোবাসতো মেগান।’
ক্লার্কের এমন কথা শুনে হয়তো কষ্টই পাবেন মেগান। আর তাতে এখন হয়তো মেগানেরও ইচ্ছা হবে হিউজকে বলতে, ‘লাভ ইউ, মিস ইউ…লাভ ইউ, মিস ইউ’।