ব্রেকিং নিউজ

রাত ৪:৪৯ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

রিজার্ভে দক্ষিণ এশিয়ায় দ্বিতীয় বাংলাদেশ

বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের দিক দিয়ে বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে দ্বিতীয় অবস্থানে ওঠে এসেছে বলে জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী নুরুল ইসলাম বিএসসি।
রোববার জাতীয় সংসদের অধিবেশনে মো. ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লাহর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান।
নুরুল ইসলাম বিএসসি বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতি ও দারিদ্র্য দূরীকরণে রেমিটেন্স প্রধান চালিকাশক্তি। রেমিটেন্সের উচ্চ প্রবাহের কারণে বর্তমানে বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ২৭ বিলিয়ন ডলার ছাড়িয়েছে যা দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে দ্বিতীয়।
মোহাম্মদ সুবিদ আলী ভুঁইয়ার এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বের ১৬০টি দেশে কর্মী প্রেরণ করছে। এ পর্যন্ত জনশক্তি, কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরোর (বিএমইটি) ছাড়পত্র নিয়ে অক্টোবর ২০১৫ পর্যন্ত বিদেশে গমনকারী মোট বাংলাদেশী কর্মীর সংখ্যা ৯৫ লাখ ৭০ হাজার ১১২ জন।
সরকারি ব্যবস্থাপনার পাশাপাশি রিক্রুটিং এজেন্সিসমূহ সরকারের পক্ষে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে কর্মী প্রেরণ করে থাকে বলে মন্ত্রী জানান।
তিনি বলেন, শুধুমাত্র সরকারি ব্যবস্থাপনায় দক্ষিণ কোরিয়া, হংকং, জর্ডান ও মালয়েশিয়া কর্মী প্রেরণ করা হয়ে থাকে। অবশিষ্ট দেশে সরকার অনুমোদিত রিক্রটিং এজেন্সি কর্মী প্রেরণ করে থাকে।
নুরুল ইসলাম বিএসসি জানান, জানুয়ারি-২০০৯ থেকে জুন ২০১৫ পর্যন্ত গত ছয় বছরে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ৪৮ হাজার ৪৪১ জন এবং সরকার অনুমোদিত রিক্রটিং এজেন্সির মাধ্যমে ৩০ লাখ ২৭ হাজার ৬২৪ জন বাংলাদেশী কর্মী বিদেশে গমন করেছে।
ফাহমী গোলন্দাজ বাবেলের আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ১৯৭৬ সাল থেকে অক্টোবর ২০১৫ পর্যন্ত বিএমইটির ছাড়পত্র নিয়ে সৌদি আরবে গমনকারী মোট বাংলাদেশী কর্মীর সংখ্যা ২৬ লাখ ৭৭ হাজার ৪৩৬ জন।