Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৯:২২ ঢাকা, বুধবার  ২১শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

রাব্বীর অভিযোগে ‘এসআই মাসুদ’এর বিরুদ্বে মামলা নিতে হাইকোর্টের নির্দেশ

পুলিশের হাতে নির্যাতিত বাংলাদেশ ব্যাংক কর্মকর্তা গোলাম রাব্বীর করা লিখিত অভিযোগ ‘এজাহার’ হিসেবে গ্রহণ করতে মোহাম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। সোমবার এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি এ কে এম সাহিদুল হকের বেঞ্চ এ নির্দেশ দেয়। একইসঙ্গে রাব্বীকে পুলিশ হেফজতে নিয়ে নির্যাতন করা কেন অসাংবিধানিক হবে না- তাও জানতে চেয়েছে আদালত। সুপ্রিমকোর্টের দুই আইনজীবী ও এক গণমাধ্যমকর্মীর করা রিট আবেদনে নির্যাতনের ঘটনার বিচার বিভাগীয় তদন্ত এবং তিন কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেয়ার আদেশ চাওয়া হলেও আদালত সে বিষয়ে আদালত কোনো নির্দেশ দেয়নি। এছাড়া রাব্বীকে নির্যাতনকারী উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাসুদ শিকদারকে গ্রেফতারের কোনো নির্দেশনাও আদালত দেয়নি। এরআগে পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপকমিশনারের কাছে একটি লিখিত অভিযোগ করেছিলেন রাব্বী। ওই লিখিত অভিযোগ এজাহার হিসেবে গণ্য করতেই আদালত নির্দেশ দিয়েছেন। এদিকে নির্যাতনের ঘটনায় আদালত যে রুল দিয়েছে- দুই সপ্তাহের মধ্যে তার জবাব দিতে স্বরাষ্ট্র সচিব, আইন সচিব, পুলিশের আইজি, পুলিশের তেজগাঁও বিভাগের উপ কমিশনার, মোহাম্মদপুর থানার ওসি এবং এস আই মাসুদ শিকদারকে বলা হয়েছে। তিন আবেদনকারী ব্যারিস্টার এ কে এম এহসানুর রহমান, এস এম জুলফিকার আলী এবং রেডিও ধ্বনির নিউজ ব্রডকাস্টার জাহিদ হাসানের পক্ষে আদালতে শুনানি করেন ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল অরবিন্দ কুমার রায়। উল্লেখ্য, গত ৯ জানুয়ারি রাতে মোহাম্মদপুর জেনেভা ক্যাম্পের কাছে বাংলাদেশ ব্যাংকের কমিউনিকেশন্স বিভাগের কর্মকর্তা গোলাম রাব্বীকে আটক করে পুলিশ। পরে তাকে মাদকসেবী বানানোর ভয় দেখিয়ে এসআই মাসুদ অর্থ আদায়ের চেষ্টা করেন। ওই সময় রাব্বীকে মারধরও করা হয়। ডান হাতের কনুই ও বাঁ পায়ে ক্ষত নিয়ে তিনি এখনও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এ ঘটনায় অভিযোগ আমলে নিয়ে ইতিমধ্যে এসআই মাসুদ শিকদারকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।