ব্রেকিং নিউজ

রাত ১১:১৫ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

নিহত অধ্যাপক এ এম রেজাউল করিম সিদ্দিকী

রাবি শিক্ষক হত্যা: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর আশ্বাসে আন্দোলন স্থগিত

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকী ‘হত্যাকাণ্ডের রহস্য উন্মোচনের খুব কাছাকাছি চলে এসেছি’ -স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর এমন আশ্বাসে অবশেষে আন্দোলন স্থগিত করেছে শিক্ষক সমিতি ও ইংরেজি বিভাগ।

মঙ্গলবার সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জুবেরী ভবনের শিক্ষক লাউঞ্জে ব্রিফিংয়ে হত্যাকাণ্ডের ২৫তম দিনে আন্দোলন স্থগিত করার কথা জানান তারা। এসময় চলমান গ্রীষ্মকালীন ছুটি শেষে তদন্তের অগ্রগতি পর্যবেক্ষণ করে পরবর্তী কর্মসূচি ঘোষণার কথাও জানানো হয়।

১৪ ও ১৫ মে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম রাবিতে আসেন। তারা সমাবেশে সংহতি জানিয়ে দ্রুত হত্যাকারীদের খুঁজে বের করার আশ্বাস দিয়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের ক্লাসে ফিরে যেতে বলেন।

রাবি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মো. শাহ্ আজম জানান, মন্ত্রী মহোদয়রা ক্যাম্পাসে এসে আমাদের আন্দোলনে সংহতি জানিয়েছেন। শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও পরিবারের সদস্যদেরকে আশ্বস্ত করেছেন। তাদের কার্যকর উদ্যোগ, আন্তরিকতা, সহমর্মিতা ও অনুরোধের প্রেক্ষিতে আমাদের চলমান আন্দোলন কর্মসূচি স্থগিত করছি। তবে গ্রহণযোগ্য সময়ের মধ্যে খুনিরা গ্রেফতার না হলে আবারও কঠোর কর্মসূচি দেয়া হবে।

গাইবান্ধা থেকে জামাআতুল মুজাহেদিন বাংলাদেশের (জেএমবি) এক সদস্যকে গ্রেফতার ও আদালতে হত্যার দায় স্বীকার করে তার জবানবন্দি দেয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা গণমাধ্যমে বিষয়টি জেনেছি। পুলিশের পক্ষ থেকে কিছু জানানো হয়নি। তবে বিষয়টি আশাব্যঞ্জক।’

এদিকে ইংরেজি বিভাগের সভাপতি ড. এএফএম মাসউদ আখতার বলেন, ‘মন্ত্রীদের আশ্বাসে ও অনুরোধের প্রেক্ষিতে আমরা আপাতত আন্দোলন স্থগিত করেছি। গ্রহণযোগ্য সময়ের মধ্যে মামলার অগ্রগতি না হলে ছুটির পর আলোচনা করে আবারও কর্মসূচি দেয়া হবে।

উল্লেখ্য, গত ২৩ এপ্রিল নগরীর শালাবাগান এলাকায় নিজ বাড়ির একটু দূরে খুন হন অধ্যাপক রেজাউল করিম সিদ্দিকী। ওইদিন থেকে ক্যাম্পাসে আন্দোলন করে আসছিল শিক্ষক সমিতি ও ইংরেজি বিভাগ। টানা ২৩ দিন বিভিন্ন কর্মসূচি পালনের পর মন্ত্রীদের আশ্বাসে আন্দোলন স্থগিত করা হয়েছে।