Press "Enter" to skip to content

রাজনৈতিক ‘চোর’রা শাস্তি পাবেই : পাক প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, যেসব রাজনৈতিক ‘চোর’দের জন্য পাকিস্তানের ওপরে বিপুল ঋণের বোঝা চেপেছে, তাদের শাস্তি নিশ্চিত করা হবে।

বিগত ১০ বছরে পাকিস্তানে বিভিন্ন দুর্নীতির তদন্তে উচ্চতর একটি কমিশন গঠনের ঘোষণা দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

পাশাপাশি দুর্নীতির বিরুদ্ধে সর্বোচ্চ লড়াইয়ের ঘোষণা দিয়ে জীবন দিয়ে হলেও জাতীয় চোরদের কোনো প্রকার ছাড় না দেয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের নামে পাকিস্তানের শীর্ষ রাজনীতিবিদদের গ্রেফতার-পরবর্তী পরিস্থিতি নিয়ে মঙ্গলবার মধ্যরাতে জাতির উদ্দেশে ভাষণে ইমরান খান এসব কথা বলেন। খবর ডন ও জিয়ো নিউজের।

ইমরান খান বলেন, বিগত সময়ের দুর্নীতি তদন্তের জন্য উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন একটি কমিশন গঠন করা হবে। এ কমিশনের প্রধান কাজ হবে- কীভাবে দুর্নীতিবাজরা গত ১০ বছরে দেশের ঘাড়ে ৩০ হাজার বিলিয়ন রুপি ঋণের বোঝা চাপিয়ে দিয়েছে তা তদন্ত করে বের করা।

যেসব রাজনৈতিক ‘চোর’দের জন্য পাকিস্তানের ওপরে বিপুল ঋণের বোঝা চেপেছে, তাদের শাস্তি নিশ্চিত করা হবে বলেও হুশিয়ারি করেন তিনি।

দুর্নীতিকে পাকিস্তানের অর্থনৈতিক দূরাবস্থার মূল কারণ উল্লেখ করে ইমরান বলেন, পারভেজ মোশাররফের আট বছরের শাসনে দুই হাজার বিলিয়ন রুপি বৈদেশিক ঋণ ছিল। কিন্তু জারদারি ও নওয়াজ শরিফের আমলে বৈদেশিক ঋণ ৪১ হাজার বিলিয়ন থেকে ৯৭ হাজার বিলিয়ন রুপি বেড়েছে।

বিগত ১০ বছরেই ৬ হাজার বিলিয়ন থেকে বেড়ে দেশের ঋণ ৩০ হাজার বিলিয়ন রুপি হয়েছে।

প্রসঙ্গত দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের নামে পাকিস্তানের শীর্ষ রাজনীতিবিদদের গ্রেফতার চলছে। দুর্নীতির মামলায় সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ আগে থেকেই কারাগারে আটক রয়েছেন।

সোমবার সাবেক প্রেসিডেন্ট আসিফ আলি জারদারিকে গ্রেফতারের পরই মঙ্গলবার মুসলিম লীগের (নওয়াজ) শীর্ষ নেতা হামযাহ শরিফকে আটক করা হয়। বিরোধী রাজনীতিবিদদের এমন গ্রেফতার দেশটির প্রধান আলোচ্য বিষয়ে পরিণত হয়েছে।

বাজেট অধিবেশন চলাকালে এ নিয়ে পাকিস্তানের জাতীয় সংসদে তুমুল হট্টগোল ও ধস্তাধস্তির ঘটনাও ঘটেছে।

শেয়ার অপশন: