ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৭:২৬ ঢাকা, বুধবার  ১৯শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

রাজনীতি থেকেই অবসরের সিদ্ধান্ত শমসের মবিন চৌধুরীর

বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান শমসের মবিন চৌধুরী শুধু ভাইস চেয়ারম্যানের পদ নয়, রাজনীতি থেকেই অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

বেশ কিছুদিন ধরেই তিনি নানা ধরনের স্বাস্থ্যগত সমস্যায় ভুগছেন। সে কারণেই তার এ সিদ্ধান্ত।

গতরাতে মি. চৌধুরী মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মাধ্যমে দলের চেয়ারপারসনের কাছে পদত্যাগপত্র পাঠিয়েছেন।

শমসের মবিন চৌধুরী এমন এক সময়ে রাজনীতি থেকে সরে দাঁড়ানোর সিদ্ধান্ত নিলেন যখন বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া লন্ডনে অবস্থান করছেন।

মি. চৌধুরী স্বাস্থ্যগত কারণ দেখিয়ে পদত্যাগ করলেও বিএনপি’র সূত্রগুলো বলছে, কারাগার থেকে জামিনে মুক্ত হবার পরে তিনি গত বেশ কয়েকমাস ধরেই নিষ্ক্রিয় ছিলেন।

গত জানুয়ারি মাসে বিএনপি যখন দেশজুড়ে অবরোধের ডাক দিয়েছিল তখন নাশকতার মামলায় তাকে আটক করা হয়।

প্রায় পাঁচ মাস কারাগারে থাকার পর মে মাসে তিনি জামিনে মুক্তি পান। এর পর থেকেই তাকে দলীয় চেয়ারপার্সনের অফিসে তেমন একটা দেখা যায়নি।

বিভিন্ন দেশের কূটনীতিক ও আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর সাথে বিএনপি’র পক্ষ থেকে যোগাযোগ রক্ষা করতেন শমসের মবিন চৌধুরী।

বিএনপি’র অনেকে মনে করেন দলটির আন্তর্জাতিক যোগাযোগ দুর্বল করতেই মি. চৌধুরীকে আটক করা হয়েছিল।

২০০১ সালে বিএনপি’র নেতৃত্বে সরকার ক্ষমতাসীন হবার পর সাবেক কূটনীতিক শমসের মবিন চৌধুরী পররাষ্ট্র সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। চাকরি থেকে অবসর গ্রহণের পর তিনি বিএনপিতে যোগ দেন।

বিএনপিতে যোগ দেবার পরে মি. চৌধুরী দলীয় প্রধান খালেদা জিয়ার আস্থাভাজন হিসেবে পরিচিত হয়ে উঠেন।

কিন্তু রাজনীতি থেকে তার এই আকস্মিক অবসর দলের অনেককেই খানিকটা বিস্মিত করেছে।