Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ৮:০৩ ঢাকা, বুধবার  ১৪ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

রাঙামাটিতে আগুন দেয়ার ঘটনায় মামলা
গতকালের ছবি সৌজন্যে এনটিভি

যুবলীগ নেতাকে হত্যা: রাঙামাটিতে ১৪৪ ধারা, উত্তেজনা, বাড়িঘরে আগুন

যুবলীগ নেতা হত্যার ঘটনায় রাঙ্গামাটির লংগদু উপজেলা সদরে পাহাড়ি ও বাঙালিদের মধ্যে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ ঘটনায় তিনটিলা এলাকাসহ আশপাশের পাহাড়িদের বাড়িঘরে সহিংস হামলা হয়েছে। আগুনে জনসংহতি সমিতির (জেএসএস) উপজেলা অফিসসহ পাহাড়িদের অনেক বাড়িঘর জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

পরিস্থিতি সামাল দিতে শুক্রবার দুপুরে ১৪৪ ধারা জারি করেছে উপজেলা প্রশাসন।

নিহত মো. নুরুল ইসলাম নয়ন লংগদু সদর ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক। তিনি লংগদুর বাইট্টাপাড়ার বাসিন্দা মৃত ফয়েজ আহম্মদের ছেলে। পেশায় নয়ন মোটরসাইকেল চালক ছিলেন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, যুবলীগ নেতা মো. নুরুল ইসলাম নয়নের মোটরসাইকেলটি দুই উপজাতীয় সন্ত্রাসী ভাড়ায় নিয়ে যায়। পরে বৃহস্পতিবার দুপুরের দিকে খাগড়াছড়ি-দীঘিনালা সড়কের চার মাইল (কৃষি গবেষণা এলাকা সংলগ্ন) নামক স্থান থেকে নুরুল ইসলাম নয়নের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

শুক্রবার সকাল ৭টার দিকে নুরুল ইসলাম নয়নের মরদেহ বাইট্টাপাড়ার নিজ বাড়িতে নেয়া হয়। সেখান থেকে সকাল ৯টার দিকে স্থানীয় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ নেতাকর্মীসহ উত্তেজিত লোকজনের একটি মিছিল লংগদু উপজেলা সদর যায়।

অভিযোগে জানা যায়, লংগদুর তিনটিলাসহ উপজেলা সদরের আশপাশে পাহাড়িদের বাড়িঘরে হামলা ও আগুন দেয় দুর্বৃত্তরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ লাঠিচার্জসহ কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি চালালে পুলিশের সঙ্গে দুর্বৃত্তদের ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

পুলিশ বলছে অনেক চেষ্টার পর পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে না আসায় সর্বশেষ শুক্রবার দুপুরে ১৪৪ ধারা জারি করেছে লংগদু উপজেলা প্রশাসন।

বর্তমানে পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত হয়ে আসছে। তবে এখনও পাহাড়ি বাঙালি উভয়ের মধ্যে চাপা ক্ষোভ ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।

এদিকে যুবলীগ নেতা নুরুল ইসলাম নয়নকে হত্যার প্রতিবাদ ও দোষীদের বিরুদ্ধে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে শুক্রবার সকাল ১১টার দিকে রাঙ্গামাটি শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছেন জেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা।