ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৮:১০ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ২০শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু
সুলতান সালাহউদ্দিন টুকু, ফাইল ফটো

যুবদল নেতা টুকু কারাগারে

যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাহউদ্দিন টুকুকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত। রাজধানীর শাহবাগ থানার নাশকতার মামলায় মঙ্গলবার ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম কেশব রায় চৌধুরী এ আদেশ দেন।

ঢাকার অপরাধতথ্য ও প্রসিকিউশন বিভাগের উপকমিশনার আনিসুর রহমান জানান, মঙ্গলবার ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে টুকুকে হাজির করে তার ৭ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ।

অপরদিকে এ রিমান্ড আবেদন বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন টুকুর আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া।

শুনানি শেষে বিচারক মামলার মূল নথি না থাকায় আগামী ২০ জুন রিমান্ড শুনানির জন্য দিন নির্ধারণ করে টুকুকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

উল্লেখ্য, পারিবারিক, দলীয় ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র বলে আসছিল যুবদলের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকুকে সোমবার দিবাগত রাত ১২টার পর সাদা পোশাকধারী পুলিশ উত্তরার নিজ বাসার সামনে থেকে তুলে নিয়ে গেছে।

পারিবারিক ও দলীয় সূত্র জানায়, উত্তরার ১৩ নম্বর সেক্টরের রোড ১৩ ও বাড়ি নম্বর ২৭- এ তার বাসার গেটের সামনে থেকে তার ড্রাইভার ও সঙ্গে থাকা একজনসহ সালাউদ্দিন টুকুকে ধরে নিয়ে যায় সাদা পোশাকধারী পুলিশ। এসময় ওই এলাকায় থাকা সিসিটিভি খুলে নিয়ে যায় তারা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আগে থেকে ডিবি পুলিশের দুইটি গাড়ি সেখানে অপেক্ষা করছিলো। টুকুর গাড়ি সেখানে পৌঁছলে পুলিশ তার গতিরোধ করে তাদের গাড়িতে তোলে।

সুলতান সালাহ উদ্দিন টুকুর স্ত্রীর বরাত দিয়ে বিএনপি চেয়ারপার্সনের প্রেস উইং সদস্য শামসুদ্দিন দিদার বলেন, টুকুর সঙ্গে আরো নেতাকর্মী ছিলেন। তাদের সবাইকে নিয়ে গেছে। কোথায় নিয়েছে, তা আমরা এখনো জানতে পারিনি।

এদিকে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন। তিনি বলেন, সরকারের লোকেরাই তাকে তুলে নিয়ে গেছে। অবিলম্বে তাকে থানায় সোপর্দ অথবা জনসম্মুখে আনার দাবি জানাচ্ছি।

এ বিষয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের উপকমিশনার (মিডিয়া) মাসুদুর রহমান গণমাধ্যমকে জানান, টুকুকে পুলিশ গ্রেফতার করে গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) কাছে হস্তান্তর করেছে। টুকুর বিরুদ্ধে একাধিক মামলা রয়েছে বলেও জানান তিনি।