ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ১:৪৬ ঢাকা, শনিবার  ২১শে জুলাই ২০১৮ ইং

যুদ্ধাপরাধীর অভিযোগ তুলে পিয়াস করিমের মরদেহ শহীদ মিনারে আনার চেষ্টা প্রতিরোধের ঘোষণা -ছাত্রলীগ সভাপতি

শীর্ষ মিডিয়া ১৫ অক্টোবর ঃ  আজ  বুধবার বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনে ছাত্র সংগ্রাম পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।    অধ্যাপক ড. পিয়াস করিমের মরদেহ সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আনার কোনো ধরনের চেষ্টা করা হলে সর্বাত্মক প্রতিরোধ করা হবে।  একইসঙ্গে মরদেহ আনা ঠেকাতে শুক্রবার সকাল ৯টা থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে থাকার ঘোষণাও দিয়েছে তারা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন জাসদ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি সামছুল ইসলাম সুমন।  লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন; পিয়াস করিম ছিলেন একজন চিহ্নিত যুদ্ধাপরাধী। তার বাবা ও তার পরিবারের সদ্যসরা ছিলেন মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে। পিয়াস করিমের টেলিভিশন টকশো ও বিভিন্ন লেখালেখিতে এ প্রমাণ পাওয়া যায়। তিনি মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃত করেছেন।

সামছুল ইসলাম বলেন, এসব কর্মকাণ্ড রীতিমত রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে অপরাধের শামিল। এমন একজন স্বাধীনতা বিরোধী ব্যক্তির মরদেহ শহীদ মিনারে আনার ঘোষণায় ছাত্র জনতা বিক্ষুব্ধ হয়েছে। মহান ভাষা শহীদদের অবদানের শহীদ মিনারে এরকম একজন যুদ্ধাপরাধীর কোনো ঠাই হবে না।

ভবিষ্যতেও যদি অন্য কোনো স্বাধীনতা বিরোধী ব্যক্তিকে জীবিত বা মৃত অবস্থায় শহীদ মিনারে ঠাই দেওয়ার অপচেষ্টা করা হলে তা প্রতিহত করা হবে বলেও সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

এ সময় সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সিদ্দিকী নাজমুল আলম, জাসদ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান আলী সাজু, বাংলাদেশ ছাত্রমৈত্রীর সভাপতি বাপ্পাদিত্য বসু, সাধারণ সম্পাদক তানভীর রুসমত, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ (বাসদ) সভাপতি মনিরুজ্জামান জুয়েল প্রমুখ।