Press "Enter" to skip to content

যুক্তরাষ্ট্র হামলা চালালে তাৎক্ষণিক পাল্টা জবাব : ইরান

যুক্তরাষ্ট্রকে ইরানে কোনো ধরনের সামরিক আগ্রাসন চালানোর চেষ্টা না করতে হুশিয়ারি দিয়েছে ইরান। এ ধরনের কোনো চেষ্টা করলে তাৎক্ষণিকভাবে পাল্টা জবাবের মুখে পড়তে হবে বলে জানিয়েছে দেশটি। 

সুইজারল্যান্ডের মাধ্যমে তেহরান ওয়াশিংটনের কাছে এই হুশিয়ারি বার্তা পাঠিয়েছে বলে বুধবার ইরানের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা ইরনা জানিয়েছে।

খবরে বলা হয়, সোমবার সন্ধ্যায় সুইস দূতাবাসে ইরানের পক্ষ থেকে ওই নোট হস্তান্তর করা হয়। সুইস দূতাবাসের মাধ্যমে ইরানের সঙ্গে মধ্যস্থতার বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করে যুক্তরাষ্ট্র। তাই সুইজারল্যান্ডের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে তেহরান এই নোট পাঠিয়েছে।

সৌদি আরবের দুটি তেল স্থাপনায় হুথিদের ড্রোন হামলার বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্র শুরু থেকেই ইরানকে দায়ী করে আসছে। সে পরিপ্রেক্ষিতে ইরানের পক্ষ থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে এ হুশিয়ারি বার্তা দেয়া হল।

প্রতিবেশী ইয়েমেনে ইরান-সমর্থিত হুতি বিদ্রোহীরা শনিবার সৌদির রাষ্ট্র মালিকানাধীন তেল কোম্পানি আরমাকোর দুটি স্থাপনায় শনিবার ড্রোন হামলা চালিয়েছে। সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় তেল স্থাপনায় হামলায় দায় ইয়েমেনের হুতি গোষ্ঠী স্বীকার করলেও এর জন্য ইরানকে দায়ি করেছে যুক্তরাষ্ট্র।

হুতিদের বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও বলেন, হুতিরা ড্রোন হামলা করেনি। ইরান হুতিদের নাম করে অভিনব কৌশলে দাম্মামের অদূরে বাকিয়াক এলাকার সেই তেলকূপে হামলা চালিয়েছে।

আনুষ্ঠানিক বার্তায় ইরান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেওর অভিযোগের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ করেছে।

এদিকে মধ্যপ্রাচ্যে যুদ্ধ শুরুর জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি আরবকে দায়ী করেছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। বুধবার রুহানি বলেন, তেহরান মধ্যপ্রাচ্যে কোনো দ্বন্দ্ব চায় না। এ সময় ইয়েমেনে যুদ্ধ শুরুর জন্য মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও সৌদি নেতৃত্বাধীন জোট দায়ী।

শেয়ার অপশন: