Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৭:৩৪ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ১৫ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

‘যুক্তরাষ্ট্রের মামলা থেকে আসে শফিক রেহমানের জড়িত থাকার প্রমানাদি’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে ও আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজিব ওয়াজেদ জয় শনিবার রাতে এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে যুক্তরাষ্ট্রে তাকে অপহরণ ও হত্যার ষড়যন্ত্র প্রসঙ্গে বলেছেন, এটা শুধু এজন্য ঘটছে, আমার মা বাংলাদেশের রাজনীতিতে আছেন এবং আমি সময়ে সময়ে তাঁকে সাহায্য করি। আর এজন্যও আমাদের বিরোধীদল সহিংস অপরাধমূলক কাজে নিমজ্জিত এবং দেশের শীর্ষ মৌলবাদি দল যারা সরাসরি আইএস এর সাথে যুক্ত তাদের সাথে জোটভুক্ত।

সাংবাদিক শফিক রেহমানকে গ্রেফতার প্রসঙ্গে বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রে আমাকে অপহরণ ও হত্যার ষড়যন্ত্রে জড়িত থাকার অভিযোগে শফিক রেহমানকে আজ আমাদের সরকার গ্রেফতার করেছে। একজন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি নেতার ছেলে, একজন সাবেক এফবিআই এজেন্ট এবং এই দু’জনের অন্য একজন আমেরিকান বন্ধু এরা সবাই এই ষড়য্ন্ত্রের কারণে সাজা ভোগ করছে। যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অব জাস্টিসের একটি প্রেস রিলিজ এর লিঙ্কও দিয়ে দেন তার স্ট্যাটাসে। তিনি শফিক রেহমানের জড়িত থাকার বিষয়ে লিখেছেন “সাংবাদিক” শফিক রেহমানের বিরুদ্ধে প্রমানাদি সরাসরি এই মামলা (যুক্তরাষ্ট্রের) থেকে এসেছে। শফিক রেহমানের সাংবাদিকতা পেশা সম্পর্কে বলেছেন, অপহরণ ও হত্যার চেষ্টায় যুক্ত হলে পেশার ধরণ পরিবর্তন হয়ে সাংবাদিক থেকে অপরাধী হয়ে গিয়েছেন।

বিএনপি এসব কাজের জন্য একটি মধ্যবর্তী পেশার কার্যধারা পরিচালনা করে বলেও অভিযোগ তুলেছেন মিঃ জয়।  

জনাব সজিব ওয়াজেদ জয় এর ফেসবুক স্ট্যাটাসটি হুবহু নিম্নে দেয়া হলঃ

How often do you actually get someone trying to kill you? In my case, apparently more often than even I am aware of. It’s not because I’m a criminal or even a bad guy. It just so happens that my mother is in politics in Bangladesh and I help her from time to time. It is also because our opposition party is of a particularly violent criminal bent and is allied with the largest fundamentalist party in the country with direct ties to ISIS.

But I digress. Today our Government arrested a senior “journalist” and opposition BNP leader Shafik Rehman for his involvement in a plot to kidnap and kill me in the US. A US BNP leader’s son, a former FBI agent and another American friend of both are already serving time in the US for this plot. You can read about that case directly from the US DOJ’s press release. I’m not sure about the “prominent” part but I am the “citizen of Bangladesh” mentioned there.

https://www.justice.gov/…/former-fbi-special-agent-sentence…

The evidence against “journalist” Shafik Rehman comes directly from this case. Note I put the word journalist in quotes because once you’re involved in trying to kidnap and kill someone I believe you have changed your career path from journalist to criminal. The BNP runs a mid-career course for that sort of thing.

কত হরহামেশা আপনি এমন কোন লোককে পাবেন যে আপনাকে হত্যার চেস্টা করছে? আমার ক্ষেত্রে, আপাতদৃষ্টিতে আমার জানার বাইরেও এটা প্রায়শই হচ্ছে। আমি অপরাধী বা কোন খারাপ মানুষও নই যে এমনটা হবে। এটা শুধু এজন্য ঘটছে যে আমার মা বাংলাদেশের রাজনীতিতে আছেন এবং আমি সময়ে সময়ে তাঁকে সাহায্য করি। এটা এজন্যও যে আমাদের বিরোধীদল যারা বিশেষত সহিংস অপরাধমূলক কাজে নিমজ্জিত এবং দেশের শীর্ষ মৌলবাদি দল যারা সরাসরি আইএসআইএস এর সাথে যুক্ত তাদের সাথে জোটভুক্ত।

কিন্তু অন্য প্রসঙ্গে আসি। যুক্তরাষ্ট্রে আমাকে অপহরণ ও হত্যার ষড়যন্ত্রে জড়িত থাকার অভিযোগে সিনিয়র সাংবাদিক ও বিএনপি নেতা শফিক রেহমানকে আজ আমাদের সরকার গ্রেফতার করেছে। একজন যুক্তরাষ্ট্র বিএনপি নেতার ছেলে, একজন সাবেক এফবিআই এজেন্ট এবং এই দু’জনের অন্য একজন আমেরিকান বন্ধু এরা সবাই এই ষড়য্ন্ত্রের কারণে সাজা ভোগ করছে। যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অব জাস্টিসের প্রেস রিলিজ থেকে আপনি এই মামলার বিষয়ে সরাসরি পড়তে পারবেন। “খ্যাতিমান” অংশটির বিষয়ে আমি নিশ্চিত নই কিন্তু সেখানে উল্লেখ করা “বাংলাদেশের নাগরিক” হচ্ছি আমি।

https://www.justice.gov/…/former-fbi-special-agent-sentence…

“সাংবাদিক” শফিক রেহমানের বিরুদ্ধে প্রমানাদি সরাসরি এই মামলা থেকে এসেছে। লক্ষ্য করুন, আমি সাংবাদিক শব্দটি উদ্ধৃত করেছি কারণ, যখন আপনি অপহরণ ও হত্যার চেষ্টায় যুক্ত হবেন তখন আমার বিশ্বাস আপনি আপনার পেশার ধরণ পরিবর্তন করে সাংবাদিক থেকে অপরাধী হয়ে গিয়েছেন। বিএনপি এসব কাজের জন্য একটি মধ্যবর্তী পেশার কার্যধারা পরিচালনা করে।