ব্রেকিং নিউজ

ভোর ৫:৩১ ঢাকা, সোমবার  ২৪শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

তোফায়েল আহমেদ
বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, ফাইল ফটো

“যারা তলাবিহীন ঝুড়ি বলেছিল তারাই এখন বাংলাদেশকে বলছে মিরাকল”

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, বাংলাদেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি বলেছিলেন, আজ তারাই বাংলাদেশকে বলছেন মিরাকল। তিনি বলেন, বাংলাদেশ পাকিস্তান থেকে অর্থনৈতিক, সামাজিকসহ সকল ক্ষেত্রে এগিয়ে রয়েছে। মা ও শিশুদের কল্যাণে সরকার আন্তরিকতার সাথে কাজ করে যাচ্ছে।
বাণিজ্যমন্ত্রী আজ ঢাকায় লি মেরিডিয়ান হোটেলে বোষ্টন ইউনিভার্সিটির সহযোগিতায় নেসলে নিউট্রিশন ইনস্টিটিউট আয়োজিত “পোস্ট গ্রাজুয়েশন প্রোগ্রাম অন পেডিয়াট্রিক নিউট্রিশন” শীর্ষক সম্মাননা প্রকল্পের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় একথা বলেন।
মন্ত্রী বলেন, বর্তমানে ভারত ও পাকিস্তান থেকে বাংলাদেশে মা ও শিশু মৃত্যুহার কম। বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা বাধাগ্রস্ত করতে দেশী-বিদেশী অনেক প্রচেষ্টা চালানো হয়েছে। কোনো বাধাই বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে থামাতে পারেনি। ডিসেম্বর মাসে বাঙালি জাতির মহান নেতা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে লাখো শহীদের রক্তের বিনিময়ে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। শুন্য হাতে বঙ্গবন্ধু দেশ পরিচালনার দায়িত্ব গ্রহণ করে সোনার বাংলা গড়ার জন্য কাজ শুরু করেছিলেন। তাঁর সে স্বপ্ন পূরণ হয়নি। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণ করতে তাঁরই কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনা আন্তরিকতা ও সফলতার সাথে কাজ করে যাচ্ছেন।
মন্ত্রী বলেন, একসময় যারা বাংলাদেশকে তলাবিহীন ঝুড়ি বলেছিলেন, আজ তারাই বাংলাদেশকে বলছেন মিরাকল। বাংলাদেশ এখন আর তলাবিহীন ঝুড়ি বা ঘূর্ণিঝড়ের দেশ নয়, সম্ভাবনার দেশ। একসময় সাড়ে সাত কোটি মানুষের খাদ্যের অভাব ছিল, আজ ১৬ কোটি মানুষের খাদ্য চাহিদা পূরণ করে বাংলাদেশ খাদ্য রপ্তানি করছে।
বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মোট রপ্তানি এখন প্রায় ৩২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। উন্নত বিশ্বে এলডিসিভুক্ত দেশগুলো ওষুধ রপ্তানির চুক্তির মেয়াদ আগামী ২০৩৩ সাল পর্যন্ত বৃদ্ধি করা হয়েছে। এলডিসিভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে একমাত্র বাংলাদেশই উন্নতমানসম্পন্ন চাহিদা মোতাবেক ওষুধ স্বল্পমূল্যে রপ্তানি করতে সক্ষম। দেশের চাহিদার ৯৭ ভাগ ওষুধ এখন দেশেই তৈরি হচ্ছে। এ মুহূর্তে বাংলাদেশ মার্কিন যুক্তরাষ্ট, জার্মানি, ফ্রান্স, ইতালি, যুক্তরাজ্যসহ বিশ্বের ১০৭টি দেশে ওষুধ রপ্তানি করে আসছে। সামনের দিনগুলোতে এ রপ্তানি অনেক বৃদ্ধি পাবে।
হলি ফ্যামিলি রেডক্রিসেন্ট মেডিকেল কলেজের প্রিন্সিপাল প্রফেসর ডা. মনিরুজ্জামান ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে সমাবর্তন বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর সাবেক স্বাস্থ্য ও সমাজ কল্যাণ বিষয়ক উপদেষ্টা অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মোদাচ্ছের আলী। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ^বিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য প্রফেসর ডা. মো. শরফউদ্দিন আহমেদ।