Press "Enter" to skip to content

মোদির নামে বাংলাদেশের গণমাধ্যমে প্রকাশিত চিঠিটি জাল : ভারত

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি অযোধ্যা মামলা নিয়ে দেশটির প্রধান বিচারপতিকে কোনো চিঠি দেননি। চিঠিটি জাল বলে দাবি করেছে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। বাংলাদেশের কয়েকটি গণমাধ্যমে চিঠিটি ছাপানোর ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবীশ কুমার তার অফিশিয়াল হ্যান্ডল থেকে টুইট করেছেন, ‘ভারত ও বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে সৌহার্দ্য ও মৈত্রীকে ক্ষুণ্ণ করার লক্ষ্যেই এটি একটি অপচেষ্টা।’

এর আগে ঢাকায় অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাসের পক্ষ থেকেও একটি বিবৃতি জারি করে বলা হয়, ‘এই চিঠি সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বিদ্বেষপূর্ণ। এর উদ্দেশ্য বাংলাদেশের মানুষকে বিভ্রান্ত করা ও সামাজিক সম্প্রীতি বিনষ্ট করা।’

গত শনিবার সুপ্রিম কোর্ট অযোধ্যা মামলার রায় ঘোষণার তিনদিন পরেই প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈকে লেখা নরেন্দ্র মোদির একটি জাল চিঠি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে। তাতে লেখা হয়, ‘এই ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তের জন্য হিন্দুরা আপনাদের কাছে চিরকাল কৃতজ্ঞ থাকবে।’

প্রধানমন্ত্রীর নামে লেখা এ জাল চিঠি নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও বাংলাদেশের কয়েকটি পোর্টাল ও গণমাধ্যমের অনলাইন সংস্করণে।

এর পরই গোটা বিষয়টি ভারতীয় কর্তৃপক্ষের নজরে আসে এবং ঢাকার ভারতীয় হাই কমিশন এ বিষয়টির কড়া নিন্দা করে বিবৃতি জারি করে।

শেয়ার অপশন: