Press "Enter" to skip to content

মেননের শপথ গ্রহণ স্থগিত চেয়ে রিট দায়ের

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-৮ আসনে নির্বাচিত রাশেদ খান মেননের শপথগ্রহণ স্থগিত চেয়ে রিট দায়ের করা হয়েছে। রিটে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) গেজেট থেকে তার নাম বাদ দেয়ার আবেদন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার হাইকোর্ট বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিটটি দায়ের করেন সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী ও ওই আসনের জাতীয় পার্টির প্রার্থী ড. ইউনুছ আলী আকন্দ।

রিটে প্রধান নির্বাচন কমিশনার, জাতীয় সংসদের স্পিকার, আইন সচিব, ঢাকা বিভাগীয় রিটার্নিং কর্মকর্তা, রাশেদ খান মেনন, রাষ্ট্রপতি কার্যালয় সচিবসহ সাতজনকে বিবাদী করা হয়েছে।

রাশেদ খান মেননকে বিজয়ী করে ঢাকা-৮ আসনের ফলাফল ঘোষণা করা কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারির আবেদন করা হয়েছে রিটে।

ইউনুছ আলী আকন্দ জানান, রাশেদ খান মেননের কর্মীরা নিজেরাই ব্যালট পেপারে সিল মেরেছে। ভোটাররা নির্বিঘ্নে ভোট দিতে পারেনি। বারবার অভিযোগ দেয়ার পরও নির্বাচন কমিশন কোনো পদক্ষেপ নেয়নি, যা সংবিধানের ৬৬ ধারার লঙ্ঘন।

এছাড়া রাশেদ খান মেনন লাভজনক পদে থেকে নির্বাচন করেছেন, যা আরপিও (গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশ) ২০ ধারার লঙ্ঘন। তার নির্বাচনী পোস্টারে রাশেদ খান মেনন আওয়ামী লীগ সভাপতির ছবি ব্যবহার করে আচরণবিধি ২০০৮ আইন লঙ্ঘন করেছেন বলেও অভিযোগ করেন ইউনুছ আলী আকন্দ।

তিনি আরও জানান, বুধবার রিট শুনানির জন্য বিচারপতি সৈয়দ রেফাত আহমেদ ও বিচারপতি ইকবাল কবিরের হাইকোর্ট বেঞ্চে উপস্থাপন করা হবে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঢাকা-৮ আসনে মহাজোটের প্রার্থী ছিলেন ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস ও লাঙ্গল প্রতীকে লড়েছেন রিটকারী আইনজীবী ড. ইউনুছ আলী আকন্দ।

উল্লেখ্য, নির্বাচন পরিচালনা বিধিমালার ৩৩ ধারায় বলা আছে, অনুচ্ছেদ ১৯ বা ৩৯ অনুযায়ী, নির্বাচিত প্রার্থীর নাম সরকারি গেজেটে প্রকাশ হওয়ার পরের ৪৫ দিনের মধ্যে সংক্ষুব্ধ পক্ষ সুপ্রিমকোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে নির্বাচনী দরখাস্ত জমা দিতে পারবেন।

Mission News Theme by Compete Themes.