ব্রেকিং নিউজ

রাত ৪:২০ ঢাকা, শনিবার  ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

মাশরুমের পুষ্টিগুণ

মাশরুম একটি অত্যন্ত স্বাস্থকর ও সুস্বাদু খাবার। দেহের ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া ও ভাইরাস দমনে এর জুড়ি নেই। নিরামিষভোজিদের জন্য মাশরুম একটা মজাদার খাবার। পাশাপাশি তা পাসতা, ওমলেট, বিফ রোল, চিকেন স্যান্ডউইচ কিংবা ফিশ ফ্রাইয়ে ব্যবহার করলে স্বাদের সঙ্গে বাড়ে খাবারের পুষ্টিগুণ। জেনে নেয়া যাক সুস্বাদু এই মাশরুমের অজানা সব পুষ্টিগুণ।

বিজ্ঞানীদের মতে, মাশরুম সম্পূর্ণরূপে চর্বিবিহীন, শর্করা কম এবং আঁশ বেশি থাকায় ডায়াবেটিক রোগীদের জন্য আদর্শ খাবার। মাশরুমে আছে শরীরের কোলেস্টেরল কমানোর অন্যতম উপাদান ইরিটাডেনিন, লোভাস্টটিন এবং এনটাডেনিন। তাই নিয়মিত মাশরুম খেলে হৃদরোগ ও উচ্চরক্তচাপ নিরাময় হয়। মাশরুম স্থূলতা কমাতেও সাহায্য করে। জন্ডিস, রক্তস্বল্পতা, ডেঙ্গুজ্বরেও মাশরুম উপকারী। মাশরুমে এমন কিছু উপাদান রয়েছে, যা ক্যান্সার, এইচআইভির মতো জীবনঘাতী রোধে কাজ করে। চিকিৎসার ক্ষেত্রে মাশরুম যেমন উপকারী, তেমনি উপকারী অর্থনৈতিক ক্ষেত্রেও।

মাশরুমে আছে প্রচুর ক্যালসিয়াম, আয়রন, পটাসিয়াম ও সেলেনিয়াম। সেলেনিয়াম উপাদানটি শুধু মাছেই পাওয়া যায়। যারা পুরোপুরি নিরামিষভোজি তারা মাশরুমের মাধ্যমে এই উপকারী উপাদানটি গ্রহণ করতে পারেন। মাশরুমে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ‘বি’ যা খাদ্যকে গ্লুকোজে রূপান্তরিত করতে সাহায্য করে। আর গ্লুকোজ থেকেই তৈরি হয় আমাদের দেহের শক্তি। ভিটামিন ‘বি’ খাদ্যবিপাক প্রক্রিয়াকেও সক্রিয় করে।