ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৭:১৬ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ডিপার্টমেন্ট অব জাস্টিস
ওয়াশিংটন ডিসিতে ডিপার্টমেন্ট অব জাস্টিস ভবন

মার্কিন সেনাকে হত্যা পরিকল্পনায় এক বাংলাদেশি অভিযুক্ত

যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ডে বসবাসরত বাংলাদেশি এক নাগরিকের বিরুদ্ধে ইসলামিক স্টেট জঙ্গিগোষ্ঠীর প্রতি সমর্থন ও সহযোগিতা দেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগের এক সংবাদ বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ২৪-বছর বয়সী নিলাশ মোহাম্মদ দাস আইএস-এর হয়ে এক মার্কিন সেনাকে হত্যার পরিকল্পনা করছিলেন। হামলার আগেই শুক্রবার তাকে গ্রেফতার করা হয়।

মেরিল্যান্ডের অ্যাটর্নি জেনারেল রড জে রসেনস্টেইন বলেছেন, “হামলার আগেই সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের ধরা আমাদের লক্ষ্য। জাস্টিস ডিপার্টমেন্টের কাছ থেকে অ্যামেরিকানরা এটাই প্রত্যাশা করে এবং আমরাও নাগরিকদের সেই প্রত্যাশা পূরণের চেষ্টা করি।”

“মি: দাসের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হয়েছে যে তিনি আইএস-এর হয়ে একজন মার্কিন সেনাকে হত্যার জন্য বদ্ধপরিকর ছিলেন”-বলেন এফবিআই-এর বল্টিমোর ডিভিশনের কর্মকর্তা গর্ডন বি জনসন।

১৯৯৫ সাল থেকে যুক্তরাষ্ট্রে বৈধভাবে বসবাস করছিলেন মি: দাস।

গত বছরের সেপ্টেম্বরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আইএস-এর প্রতি সমর্থন জানিয়ে এফবিআই-এর নজরদারিতে আসেন নিলাশ মোহাম্মদ দাস।

বিচার বিভাগের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পুলিশের একজন তথ্যপ্রদানকারীর সহযোগিতায় মি: দাসকে অনুসরণ করা হচ্ছিল।খবর বিবিসির।

গত মাসে ভার্জিনিয়ার এক এলাকায় এক বাক্স অস্ত্র কেনার সময় নিলাশ মোহাম্মদ দাসকে গ্রেফতার করে এফবিআই। সোমবার আদালতে প্রাথমিক শুনানির পর তাকে গোয়েন্দা হেফাজতে রাখা হয়েছে।

নিলাশ মোহাম্মদ দাসের বিরুদ্ধে অভিযোগ আদালতে প্রমাণিত হলে ২০ বছরের কারাদণ্ডে দণ্ডিত হতে পারেন তিনি।