ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৮:৫৮ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

পুতিন-এরদোগান
পুতিন-এরদোগান/ ফাইল ফটো

‘মার্কিনি সিদ্ধান্তে মধ্যপ্রাচ্যের স্থিতিশীলতা নষ্ট করবে’

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগানের সঙ্গে বৈঠক করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। আঙ্কারায় অনুষ্ঠিত এই বৈঠকে জেরুজালেম সংকটের বিষয়ে কথা বলেন দুই দেশের প্রধান।

স্থানীয় সময় সোমবার আঙ্কারায় বৈঠকে বসেন দুদেশের শীর্ষ দুই নেতা। তুরস্ক সফরের আগে পুতিন সিরিয়া ও মিসর সফরে যান। খবর আলজাজিরার।

খবরে বলা হয়, পুতিন-এরদোগান বৈঠকে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের পাশাপাশি উঠে আসে জেরুজালেম ইস্যু। এ সময় পুতিন বলেন, জেরুজালেম বিষয়ে সিদ্ধান্ত ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের আলোচনার মাধ্যমেই হওয়া উচিত।

বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট বলেন, ‘রাশিয়া ও তুরস্ক দুই দেশই মনে করে, জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেওয়ার মার্কিনি সিদ্ধান্ত মধ্যপ্রাচ্যের সংকটময় পরিস্থিতির উন্নতি করবে না। শান্তির পথ থেকে দূরে সরে এটি ওই অঞ্চলের স্থিতিশীলতা নষ্ট করবে।’

এদিকে, জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে ঘোষণার পর থেকেই এ সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগান। এ ইস্যুতে পুতিনকে পাশে পেয়ে বেশ খুশি তিনি। ট্রাম্পের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদের সময় নিহত ফিলিস্তিনিদের মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেন এরদোগান।

গত ৬ ডিসেম্বর জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেন ট্রাম্প। ট্রাম্পের এ সিদ্ধান্ত ইসরায়েল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে চলমান দ্বন্দ্বকে আরো সংকটময় করবে বলে ধারণা করছেন বিশেষজ্ঞরা। জেরুজালেমের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে বেশ শঙ্কিত সৌদি আরবসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশের নেতারা। এ বিষয়ে নিজেদের প্রতিক্রিয়ার কথা জানিয়েছেন তাঁরা।