ব্রেকিং নিউজ

রাত ১২:৩৬ ঢাকা, মঙ্গলবার  ১৩ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

ডাঃ ইমরান এইচ সরকার

‘মারা যখন যেতেই হবে, শব্দ করেই মরি’

সবাই যখন মারা যাচ্ছে তখন কি চুপ থেকে বাঁচা যায়? মারা যখন যেতেই হবে, শব্দ করেই মরি। কি বলেন সবাই? এ মন্তব্য করেছেন গণজাগরণ মঞ্চের প্রধান নেতা ডাঃ ইমরান এইচ সরকার।

তিনি এক ঘণ্টা আগে তার ফেসবুক পেইজে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. রেজাউল করিম সিদ্দিকীর হত্যা নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে তার দেয়া স্ট্যাটাসের প্রেক্ষিতে ফেসবুক অনুসারীদের উদ্দেশ্যে এ কথা বলেন।

তিনি স্ট্যাটাসে লিখছেন, আবারো বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক খুন! কে হচ্ছে না খুন? বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক, স্কুল ছাত্র, কলেজ ছাত্র, বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থী, গৃহকর্মী, লেখক, প্রকাশক, মুয়াজ্জিন, পুরোহিত? কে বাদ আছে? যখন সকলেই অনিরাপদ তখন ড. রেজাউল করিম সিদ্দিকী ধর্ম প্রচারক ছিলেন নাকি উদার মানসিকতার ছিলেন, এটা ফালতু আলোচনা। এটা শুধুমাত্র সরকারেরই প্রয়োজন হতে পারে আমাদের মতো বোকা নাগরিকদের বিভক্ত করার কাজে। ধর্ম প্রচারক হলে স্ক্রিপ্টে লেখা হবে জঙ্গী আর উদার হলে নাস্তিক, দায়দায়িত্ব শেষ!

একটু ভেবে দেখলাম, এদেশে শুধুমাত্র ক্ষমতাসীন দলের নেতারা বাদে (কর্মীরাও খুন হচ্ছে) সবাই খুন হচ্ছে। এমনকি ক্ষমতাসীন নেতা-নেত্রী ও তাদের পরিবার, আত্মীয়-স্বজনদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের বাইরে অন্য কোনো ঘটনার বিচারও হচ্ছে না। বলা চলে, অন্য কোনো ঘটনার দায়-দায়িত্বও সরকার নিচ্ছে না! বরং এসব ঘটনায় বিচার প্রার্থীদের গুম, খুন করা থেকে শুরু করে হেন কোনো অপপ্রচার নেই, যা তাদের বিরুদ্ধে করা হচ্ছে না।

যাইহোক, বিচার চেয়ে তো এদেশে কোনো লাভ নাই, খুন-ধর্ষণ-লুটপাটের বিচার চাইলে পুরস্কার হিসেবে পাই আনফ্রেন্ড আর প্রকাশ্যে হত্যার হুমকি। আমরা কি তাহলে বিচার চেয়ে সরকারকে বিব্রত করা বন্ধ করে দেব? নাকি সবাই মিলে সরকারের দিকে আঙুল তুলে বলবো, আপনারাই রেজাউল করিম সিদ্দিকীর খুনি।

imran6imran7

FOLLOW US: