Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৬:০৬ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ১৫ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

মানুষ হত্যার জন্য খালেদা জিয়া দায়ী

Like & Share করে অন্যকে জানার সুযোগ দিতে পারেন। দ্রুত সংবাদ পেতে sheershamedia.com এর Page এ Like দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকতে পারেন। আপনাদের সহযোগিতা আমাদেরকে অনুপ্রানিত করবে।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমন্বয়ক মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, অবরোধের নামে বোমা হামলা করে মানুষ হত্যার জন্য বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া দায়ী।
তিনি বলেন, নৈরাজ্য সৃষ্টির মাধ্যমে মানুষ হত্যা না করে, আপনি চার বছর দল গোছান। মিটিং করেন কোন অসুবিধা নেই। কিন্তু হরতাল-অবরোধ দিয়ে সাধারণ মানুষের ক্ষতি করবেন না। কেন আপনি বোমা মেরে সাধারণ মানুষকে হত্যা করছেন?
মোহাম্মদ নাসিম আজ বুধবার রাজধানীর মিরপুরের পূররী সিনেমা হলের সামনে কেন্দ্রীয় ১৪ দল আয়োজিত শান্তি সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।
বিএনপি-জামায়াত নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের দেশ বিরোধী চক্রান্ত, ষড়যন্ত্র, সন্ত্রাস, নৈরাজ্য, চোরাগুপ্তা বোমা হামলা, জঙ্গি নাশকতা ও ধ্বংসাত্মক কর্মকান্ডের প্রতিবাদে এই শান্তি সমাবেশ ও র‌্যালীর আয়োজন করা হয়।
স্থানীয় সংসদ সদস্য ইলিয়াস উদ্দিন মোল্লার সভাপতিত্বে সভায় বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি এবং বিমান ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন, সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়–য়া, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি এম এ আজিজ, সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীর বিক্রম, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন ও আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, খাদ্যমন্ত্রী এডভোকেট কামরুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, জাসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাজমুল হক প্রধান, কমিউনিস্ট কেন্দ্রের আহ্বায়ক ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম খান, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাৎ হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
বেগম খালেদা জিয়ার উদ্দেশ্যে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, শুনে রাখুন, ২০১৯ সালের আগে এদেশে জাতীয় সংসদ নির্বাচন হবে না, হবার কোন সম্ভাবনাও নেই। ২০১৯ সালের নির্বাচনও শেখ হাসিনার অধীনেই হবে। তাই আপনাকে বলি মাথা গরম না করে দল গোছান। নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতি নিন।
যারা মানুষের রক্ত নিয়ে হোলী খেলে অচিরেই তাদের বিচারও শুরু হবে জানিয়ে রাশেদ খান মেনন বলেন, পেট্রোল বোমায় দেশের মানুষের যে ক্ষতি সাধন হয়েছে, তার জন্য খালেদা জিয়াকে বিচারের কাঁঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে।
তিনি বলেন, খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রীর জন্য নিজ কার্যালয়ের দরজা বন্ধ করে সংলাপের দরজাও বন্ধ করে দিয়েছেন। আলোচনা একশ বার হবে কিন্তু শর্ত আরোপ করে কোন আলোচনা নয়।
মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বলেন, ক্ষমতায় যেতে না পেরে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া এতিমের মত রাস্তায় রাস্তায় ঘুরছেন। তিনি ৫ জানুয়ারী নির্বাচনে না এসে আম ও ছালা দুটোই হারিয়েছেন। ২০১৯ সালে তিনি নির্বাচনে না আসলে তিনি আম, ছালা, গাছ তিনটাই হারাবেন।
কামরুল ইসলাম বলেন, সামনে এসএসসি পরীক্ষা। সেই পরীক্ষার্থীদের জিম্মি করে বিএনপি-জামায়াত দাবী আদায়ের চেষ্টা করছে। সারা দেশেকে অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করার চেষ্টা চলছে। কাউকে জিম্মি করে দাবী আদায়ের সংস্কৃতি সরকার এদেশে চালু হতে দেবে না।