ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ১২:৪৬ ঢাকা, শনিবার  ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

মানববন্ধনে ছোরাসহ আটক যুবকটি রিকশা চালক না-কি ছদ্মবেশী সন্ত্রাসী?

চট্টগ্রামে পুলিশ সুপার বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমুদা খানম মিতুর খুনের বিচার দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধন চলাকালে জঙ্গি সন্দেহে এক যুবককে আটক করেছে জনতা। তার রিকশার যাত্রী বসার গদির নিচ থেকে দুইটি ছোরাসহ একটি মোবাইল পাওয়া গেছে।

রিকশা চালিয়ে বেশ কয়েকবার মানববন্ধনের সামনে দিয়ে ঘোরাফরার সময় তাকে আটক করে টহল পুলিশ। আটককৃত মো. ইব্রাহিমের বাড়ি টাঙ্গাইল জেলায়। তাকে কোতয়ালী থানায় সোপার্দ করা হয়েছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে ইভেন্ট খুলে শুক্রবার বিকাল তিনটার দিকে জামালখানের চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে ঐ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়েছিল। কোতোয়ালি থানার সহকারি উপ-পরিদর্শক তাজাম্মেল হক ও প্রত্যক্ষদর্শীরা গণমাধ্যমকে জানান, ফুল প্যান্ট ও গেঞ্জি পরা ওই যুবকের পিঠে ব্যাগ ছিল। রহস্যজনক আচরণ করছিলেন ওই রিকশাচালক।

এরপর স্থানীয় কয়েকজন তরুণ ওই রিকশাচালককে আটক করে টহল পুলিশের সোপর্দ করে। এই সময় ব্যাগ তল্লাশি করে পুলিশ কিছু না পেলেও রিকশার যাত্রী বসার গদির নিচে দুটি ছোরা, একটি পেনড্রাইভ ও একটি দামি মোবাইল পাওয়া যায়। ঐ রিকশাচালক নিজের বাড়ি টাঙ্গাইল বলে জানালেও অন্যান্য প্রশ্নের উত্তরে অসংলগ্ন কথাবার্তা বলে। কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জসীম উদ্দিন গণমাধ্যমকে বলেন, প্রেসক্লাবের সামনে থেকে জঙ্গি সন্দেহে এক রিকশাচালককে আটক করা হয়েছে। তাকে থানায় এনে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

ধৃত যুবকটি আসলেই রিকশা চালক না-কি ছদ্মবেশী সন্ত্রাসী ছিলেন সেটা জানার কৌতূহল নিয়ে সবাই অপেক্ষায় আছেন।