স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল
মানবপাচার প্রতিরোধ বিষয়ক ‘রিজিওনাল কনফারেন্সে’ প্রধান অতিথি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

মানবপাচারের ঘটনা এখন কম : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বাংলাদেশ থেকে মানবপাচারের ঘটনা এখন অনেক কমে এসেছে।

তিনি বলেন, একটা সময় বাংলাদেশ থেকেও মানবপাচার হয়েছে। তবে দিনদিন তা কমে আসছে। এখন যেটা হচ্ছে -প্রলুব্ধ করা। বাংলাদেশ থেকে এখন জোর করে নয়, প্রলুব্ধ করে বিদেশে নিয়ে যাচ্ছে। এতে তারা ভিকটিম হচ্ছে, অনেকে বিভিন্ন দেশে আটকে রয়েছে।

আজ শনিবার রাজধানীর একটি হোটেলে অনুষ্ঠিত মানবপাচার প্রতিরোধ বিষয়ক ‘রিজিওনাল কনফারেন্সে’ প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

জাতিসংঘের অভিবাসন সংস্থা আইওএম’র সহযোগিতায় ‘কমবেটিং ট্র্যাফিকিং: রিপেট্রিয়েশন অব ভিকটিমস অব ট্র্যাফিকিং’ শীর্ষক এ সেমিনারের আয়োজন করে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আইওএম-বাংলাদেশের প্রধান গিওরগি গিগাউরি, সংসদ সদস্য নাহিম রাজ্জাক, অ্যাটসেক ইন্ডিয়ার ন্যাশনাল কোঅর্ডিনেটর মানবেন্দ্র নাথ মন্ডল, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক প্রমুখ।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দেশের প্রতিটি জেলায় মানবপাচার রোধে পুলিশের কমিটি রয়েছে। এছাড়া স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকেও সার্বক্ষণিক নজরদারি করা হয়। মানবপাচার রোধে বিজিবি ও কোস্টগার্ডের সক্ষমতা বৃদ্ধি করা হয়েছে। তারা সীমান্ত এলাকায় সার্বক্ষণিক মনিটরিং করছে।

আসাদুজ্জামান খান কামাল জানান, বাংলাদেশের কারাগারে বর্তমানে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ৪৯৫জন নাগরিক বন্দি আছেন।