ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৬:২০ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ধর্মীয় অনুভুতিতে আঘাত করে মন্তব্য করায় মন্ত্রিত্ব থেকে উইকেট পরে যেতে পারে লতিফ সিদ্দিকীর

শীর্ষ মিডিয়া   ৩০ সেপ্টেম্বর ঃ খুব শিঘ্রই মন্ত্রিত্ব থেকে উইকেট পরে যেতে পারে মিঃ লতিফ সিদ্দিকীর, ধর্মীয় অনুভুতিতে আঘাত করে মন্তব্য করায় সরকার তার বিরুদ্বে ব্যবস্থা নিতে যাচ্ছে এমনটি ঈঙ্গিত করেছেন যোগাযোগ মন্ত্রী মিঃ ওবায়দুল কাদের। হজ সম্পর্কে মন্তব্য করে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছেন  উক্ত মন্ত্রী।
আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে মহাজোট সরকারের ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকী হজ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে মন্তব্য করার পর প্রধান বিরোধী দল বিএনপির নেতারা তাকে অপসারণের দাবি জানিয়েছেন।
হেফাজতে ইসলামও আজ মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলন করে বৃহস্পতিবারের মধ্যে তাকে অপসারণের দাবি জানিয়েছে।
হেফাজতে ইসলামের দাবি মি. সিদ্দিকীকে ক্ষমা চাইতে হবে এবং বৃহস্পতিবারের মধ্যে তাকে অপসারণ করা না হলে রাজধানী ঢাকায় তার বিরুদ্ধে সমাবেশের আয়োজন করা হবে।
মি. সিদ্দিকীর নিজের দল আওয়ামী লীগের অনেক নেতাও তার এধরনের বক্তব্যের সমালোচনা করেন।
তবে লতিফ সিদ্দিকীকে মন্ত্রিসভা থেকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত সরকারের উচ্চপর্যায়ে নেওয়া হয়েছে বলে  একটি সূত্র আজ  নিশ্চিত করেছে।  এ ব্যাপারে সরকারের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানানো হয়নি।
এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, তিনি এ বিষয়ে কিছু জানেন না। ফোনেও প্রধানমন্ত্রী তাঁকে কিছু বলেননি। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব আবদুস সোবহান সিকদারও বলেন, তিনিও কিছু জানেন না।
পবিত্র হজ, তাবলিগ জামাত, প্রধানমন্ত্রীর পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়, প্রবাসী বাংলাদেশি ও সাংবাদিকদের বিষয়ে বিরূপ মন্তব্য করার অভিযোগে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী আবদুল লতিফ সিদ্দিকীকে মন্ত্রিসভা থেকে সরিয়ে দেওয়ার গুঞ্জন শুরু হয়েছে। বেসরকারি টেলিভিশনগুলোর স্ক্রলেও বিষয়টি দেখানো হচ্ছে। 
নিউইয়র্কে সেখানকার স্থানীয় সময় গত রোববার বিকেলে এক মতবিনিময় অনুষ্ঠানে লতিফ সিদ্দিকী বিতর্কিত বক্তব্য দেন। জ্যাকসন হাইটসের একটি হোটেলে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে নিউইয়র্ক টাঙ্গাইল সমিতি। তাঁর বক্তব্যের ভিডিও ক্লিপ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। দেশের একাধিক বেসরকারি টেলিভিশনেও তা প্রচার করা হয়।