Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৫:১৭ ঢাকা, সোমবার  ১৯শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি - প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।
প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি - প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

মতবিরোধের কারণেই ট্রাম্পের ভারত সফর বাতিল?

ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসের প্রধান অতিথি হিসেবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

আগামী বছরের ২৬ জানুয়ারি অনুষ্ঠিতব্য ওই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ বাতিল করেছেন ট্রাম্প।

মার্কিন প্রশাসন এ সফর বাতিলের কারণ হিসেবে একই সময়ে অভ্যন্তরীণ জরুরি কর্মসূচিকে দায়ী করেছে। এ ব্যাপারে মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এখনও বিবৃতি দেয়নি। রোববার দিল্লির মার্কিন দূতাবাস ট্রাম্পের ভারত সফর বাতিলের খবর নিশ্চিত করেছে। -খবর এনডিটিভির।

গত এপ্রিলে ভারতের তরফে ট্রাম্পকে এই কর্মসূচিতে অংশ নেয়ার আমন্ত্রণ পাঠানো হয়। আগস্টে হোয়াইট হাউসের প্রেস সেক্রেটারি সারাহ স্যান্ডার্স ওই আমন্ত্রণ পাওয়ার কথা নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, আগামী সেপ্টেম্বরে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। এনডিটিভি জানায়, একই সময়ে ট্রাম্পের সিনেটে বার্ষিক স্টেট অব ইউনিয়ন ভাষণ দেয়ার কথা রয়েছে। এই ভাষণের জন্য কোনো নির্দিষ্ট দিন ধার্য নেই।

তবে ২২ জানুয়ারি থেকে ফেব্রুয়ারির প্রথম সপ্তাহের মধ্যেই এ ভাষণ দিয়ে থাকেন দায়িত্বরত মার্কিন প্রেসিডেন্ট।

২০১৫ সালে স্টেট অব ইউনিয়ন ভাষণ স্থগিত রেখেই ভারতের প্রজাতন্ত্র দিবসের প্যারেডে যোগ দিয়েছিলেন তৎকালীন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

বিশ্লেষকদের ধারণা, বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী দুই অর্থনীতির মধ্যে বেশ কয়েকটি ইস্যুতে মতবিরোধের মধ্যে এবারের কর্মসূচি বাতিল করলেন ট্রাম্প।

সম্প্রতি রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ মিসাইল ব্যবস্থা ক্রয় চুক্তির বিষয়ে ভারতকে সতর্ক করে দেয় যুক্তরাষ্ট্র।

চলতি মাসের শুরুতে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের ভারত সফরের সময়ে পাঁচটি এস-৪০০ মিসাইল ব্যবস্থা কেনার চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এছাড়াও ইরানের কাছ থেকে তেল কেনা নিয়েও ভারতকে সতর্ক করে যুক্তরাষ্ট্র।

নিষেধাজ্ঞার হুমকি সত্ত্বেও ইরান থেকে তেল কেনার সিদ্ধান্ত অব্যাহত রেখেছে ভারত। ট্রাম্প আমন্ত্রণ বাতিল করায় ভারতের মোদি সরকারকে এখন নতুন কোনো রাষ্ট্রপ্রধানকে আমন্ত্রণ জানাতে হবে। ট্রাম্পের বাতিল করা আবেদন আর কোনো রাষ্ট্রপ্রধান নেবেন কিনা তা নিয়ে অনিশ্চয়তা রয়েছে।

২০১৬ সালে এই কর্মসূচিতে প্রধান অতিথি ছিলেন ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলান্দ। ২০১৪ সালে উপস্থিত ছিলেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে।