ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৯:২৫ ঢাকা, শনিবার  ২২শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

মডেল আফরির এগিয়ে চলা

Like & Share করে অন্যকে জানার সুযোগ দিতে পারেন। দ্রুত সংবাদ পেতে sheershamedia.com এর Page এ Like দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকতে পারেন।

 

সবার মতোই স্বপ্ন দেখতে পছন্দ করেন তিনি। তাই স্বপ্নের ভেলায় চড়ে ভেসে যেতে চান দূরের পজিটিভ গন্তব্যে। সেই পথে হাঁটছেনও। নাম তার আফরি সেলিনা। অনার্সের শেষ বর্ষের ছাত্রী আফরি সাবলীল অভিনয় শৈলীর কারনে এ প্রজন্মের একজন প্রতিশ্র“তিশীল মডেল ও অভিনেত্রী হিসেবে নিজেকে দাঁড় করাবার চেষ্টা করছেন। পড়াশোনার পাশাপাশি মডেলিং নিয়ে ভীষণ ব্যস্ত আছেন তিনি। অল্প সময়ে কিছু ভালো কাজের মাধ্যমে দর্শকের আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন।ব্যক্তি হিসেবে আফরি সেলিনা একটু মিশুক প্রকৃতির। সহজেই সবার সাথে মিশতে পারেন। মিষ্টি হাসি এবং প্রাণবন্ত আলাপচারিতায় মাতিয়ে রাখেন সবাইকে। কাজে খুব সিরিয়াস এবং সিনসিয়ারিটি মেইনটেন করেন। আফরির অভিনয়ের বীজটা ছোটবেলায় রোপন হয়েছিল। স্কুল জীবন থেকে সাংস্কৃতিক অঙ্গনের সঙ্গে যুক্ত হয়েছিলেন তিনি। ক্লাশ সেভেনে পড়ার সময় কলকাতার নৃত্যশালা থেকে নাচের ওপর স্বর্ণপদক পান আফরি। নাচ ও অভিনয়ের প্রতিটি মাধ্যমেই পারদর্শী ছিলেন। তিনি সব সময় স্বপ্ন দেখতেন নাটকে অভিনয় করবেন কিংবা বিজ্ঞাপনের মডেল হবেন। স্বপ্নটা শেষমেষ সফল হয়েছে। হয়েছেন একজন মডেল ও অভিনেত্রী।
২০১১ সালে কিষোয়ান গুঁড়া মসল্লার একটি বিজ্ঞাপন করে মিডিয়ায় পথচলা শুরু। তারপর ফ্যাশন হাউস মানশা, জারা হাউস, নিডেল ড্রপ, ব্র্যান্ড স্টাইল সেলফ, ব্র্যাক ব্যাংকসহ নামকরা প্রতিষ্ঠান ও কিছু ফ্যাশন হাউজের মডেল হয়েছেন তিনি।
তার করা সিটিসেল, অজো, ব্র্যাক ব্যাংকের বিলবোর্ডগুলো সারাদেশে ছড়িয়ে আছে। বর্তমানে আফরি সিটিসেলের ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হিসেবে কাজ করছেন। তার অভিনীত বিজ্ঞাপনগুলো হচ্ছে- সিটিসেল, প্রাণ লাচ্ছি, প্রাণ আরএফএল, প্রাণ চকো, পার্ল ক্রীম, এসএ ডেভেলপমেন্ট কোম্পানী, পিংফুড, সজীব সয়াসস, বাংলাদেশ মেলামাইন, প্রাণ অলটাইম বাটার ইত্যাদি। প্রাণ লাচ্ছি বিজ্ঞাপনটি ছিল আফরির জন্য টার্নিং পয়েন্ট। এই বিজ্ঞাপনটির মাধ্যমে সবাই আফরিকে চিনতে শুরু করে। প্রাণ লাচ্ছি, কিষোয়ান গুঁড়া মসল্লার বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে দর্শক পরিচিতি অনেক বেড়ে যায়।
বর্তমানে তার অভিনীত অ্যাংকর মিল্ক বিজ্ঞাপন চিত্রটি প্রচার হচ্ছে বিভিন্ন চ্যানেলে। বেশ অল্প সময়ের মধ্যে মডেলিং জগতে আলোচনায় চলে এসেছেন। তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য নাটক, ধারাবাহিক নাটক- অহনা, আগুন পোকা, দ্য ডিজেটাল, টেলিফিল্ম- স্বপ্নে বসবাস, ডি লস, খন্ডনাটক- ছিনতাইকারী ইত্যাদি।
এতো গেল টিভি মিডিয়ার কথা। বড় পর্দাতেও আফরি অভিনয় করছেন। সম্প্রতি মুক্তি পেয়েছে তার অভিনীত চলচ্চিত্র ‘স্বপ্ন যে তুই’। মনিরুল ইসলাম সোহেলের পরিচালনায় এ ছবিতে আফরি ভিন্ন একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন। তার অভিনীত প্রথম চলচ্চিত্র নাঈম তালুকদারের ‘অন্যপথ’। ছবিটির শুটিং শেষ হয়েছে অনেক আগেই। এটিও মুক্তির অপেক্ষায় আছে বলে জানান আফরি। তার অভিনীত রোমান্স ছবিটিও মুক্তির অপেক্ষায় আছে।
এছাড়াও বেশ কয়েকটি নতুন ছবিতে অভিনয় করার কথা রয়েছে তার। আফরি বলেন, আমার টার্গেট হচ্ছে চলচ্চিত্রে নিয়মিত অভিনয় করা। তাই তো ফাইট শিখেছি। চলচ্চিত্রের জন্য আলাদা প্রস্তুতিও নিচ্ছি। আর নাটকে অভিনয় করাটা হচ্ছে চলচ্চিত্রে অভিনয়ের প্রস্তুতি। তার মানে এই নয় যে টিভি মিডিয়ায় কাজ করব না। অবশ্যই করব।
একনজরে
নাম: আফরি সেলিনা
ডাক নাম: আফরি
বাবা: এম ডি সেলিম হোসেন
মা: মায়া হোসেন
জন্ম: ১৪ এপ্রিল
উচ্চতা ও রাশি: ৫ ফুট ৫ ইঞ্চি, মেষ রাশি
পড়াশোনা: অনার্স (লালমাটিয়া মহিলা কলেজ)
প্রিয় মডেল: নোবেল
প্রিয় রঙ: সাদা
প্রিয় পোশাক: গাউন
প্রিয় মুহূর্ত: ২০১৩ সালে সিটিসেল-এর ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর হওয়ার মুহুর্তটি
মিডিয়াতে প্রথম কাজ: ২০১১ সালে কিষোয়ান গুঁড়া মসল্লার টিভিসি
ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা: মিডিয়ায় প্রতিষ্ঠিত একজন অভিনেত্রী হতে চাই।