Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৭:০৫ ঢাকা, বুধবার  ২১শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

মঙ্গলে ওবামার মস্তক!

আবারো বিতর্ক তৈরি করলেন ইউএফও গবেষক স্কট ওয়্যারিং। এবার তিনি দাবি করলেন মঙ্গলের পিঠে ওবামার মস্তক দেখা গেছে। এর আগে ইউরোপিয়ান স্পেস এজেন্সির (এসা) মিশন রসেটার ধূমকেতু নিয়ে হইচই ফেলে দিয়েছিলেন এই গেবেষক। তিনি বলেছিলেন, রসেটা মিশনের রোবটযান ফিলা কোনো ধূমকেতুর পিঠে নয়, চড়ে বসেছে ছুটন্ত ইউএফওর পিঠে। এমনকি ভিনগ্রহের এলিয়েনরা রহস্য সঙ্গীত গেয়ে পৃথিবীর উদ্দেশে সংকেতও পাঠাচ্ছে।

পরে গবেষণায় দেখা গেছে সেই কথিত রহস্য সঙ্গীতটি মূলত অবতরণের সময় রোবটযান ফিলার পায়ের ভাইব্রেশান। তবে স্কট ওয়্যারিং এর এবারের দাবিটি কোথায় গিয়ে ঠেকে, সেটাই দেখার বিষয়। তিনি দাবি করেছেন লাল গ্রহ

মঙ্গলের পাথুরে পিঠে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার চেহারা স্পষ্ট দেখা গেছে। আর যে ছবিটি দেখিয়ে তিনি এ দাবিটি তুলছেন, সেটা নাসাকর্মীরা ধারণ করেছিলেন ২০০৫ সালে। তখন মঙ্গলের পিঠের হাজারখানেক ছবি প্রকাশ করেছিলো মহাকাশ গবেষণা সংস্থাটি। ইউএফও সাইটিং ডেইলি নামের একটি ব্লগে স্কট ওয়্যারিং লিখেন, মঙ্গলের পিঠে আমি যে আকৃতিটা দেখেছি ওটা হুবহু মানুষের মতোই। অনেকটা বিমূর্ত, জল রঙের মাখামাখিও আছে। আমার কাছে মনে হয়েছে ওটার তিনটি ডাইমেনশনও রয়েছে। আর ওই চেহারাটা পুরো ওবামার মতো। দেখে মনে হচ্ছে মূর্তিটার সারা শরীর মঙ্গলের ভ’মিতে দেবে আছে। পাথুরে ঘেরের পাশে কেবল মস্তকটা সটান বেরিয়ে আছে।

একই সাইটে অন্য ইউএফও (আন আইডেন্ডিফাইড ফ্লাইং অবজেক্ট) গবেষক লিখেন, ছবিটি কম্পিউটার দিয়ে পরীক্ষা করেও দেখা ওয়েছে। সফটওয়ার প্রোগ্রামের মাধ্যমে পরিষ্কার করে দেখা গেছে ওটা একেবারেই যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার চেহারা।

গত কয়েক দশক ধরেই মঙ্গলের প্রতি ব্যাপক আগ্রহ পৃথিবীবাসির। অনেকে সেখানে বসত বাড়িও তৈরি করতে চাচ্ছেন। এ কারণেই বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার খরচ করে মঙ্গল অভিযান পরিচালনা করছে মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা। এতে তারা মঙ্গলের অকেগুলো ছবি সংগ্রহ করতে পেরেছেন। এর আগের অনেক ছবিতেও ওখানকার পাথরের ওপর মানুষের আকৃতি খুঁজে পেয়েছেন তারা। তাই অনেকে ধারণা করছেন, এসব ছবিই প্রমাণ করে লাল গ্রহে এক সময় প্রাণের অস্তিত্ব ছিলো।

তবে অন্য এক গবেষক দল বিষয়টিকে ব্যাখ্যা করছেন ভিন্নভাবে। তারা মঙ্গলের ছবিতে সত্যি সত্যিই নাক, চিবুক এবং চোখের আকৃতির কথা স্বীকার করেছেন। তবে স্কট ওয়্যারিং ও অন্য ইউএফও গবেষকদের হতাশ করে বলেছেন, এগুলো কেবল আলোর খেলা। মঙ্গল গ্রহের উত্তর পূর্ব দিক থেকে ৩৬০ ডিগ্রীতে দেখলে কালার গ্যালারির কারণে এমন অবয়ব তৈরি হয়। এটি মূলত পাথর এবং মাটির ব্যবধানে ছায়া উপছায়া ও রঙের কারসাজি। সূত্র: ডেইলি মেইল