শীর্ষ মিডিয়া

ব্রেকিং নিউজ

রাত ১১:০৫ ঢাকা, মঙ্গলবার  ১৮ই ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

পানিসঙ্কট
পানিসঙ্কটের নমুনা ফটো

ভয়াবহ পানিসঙ্কটে ৬০ কোটি ভারতীয়

ভারতের ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়াবহ পানিসঙ্কট দেখা দিয়েছে। এর ফলে কোটি কোটি জীবন বিপন্ন। এমনই জানিয়েছে নীতি আয়োগ। গতকাল নীতি আয়োগের পানি বিষয়ক সূচকের রিপোর্ট প্রকাশিত হয়েছে।

সেই রিপোর্টে বলা হয়েছে, অন্তত ৬০ কোটি ভারতীয় পানিসঙ্কটে ভুগছেন। নিরাপদ পানি না পেয়ে প্রতি বছর অন্তত দু’লক্ষ মানুষের মৃত্যু হয়। ৭৫ শতাংশ ভারতীয়র বাড়িতেই পানীয় পানি’র ব্যবস্থা নেই। ভারতের গ্রামগুলিতে ৮৪ শতাংশ বাড়িতেই নলের মাধ্যমে পানি সরবরাহের ব্যবস্থা নেই। ৭০ শতাংশ পানিই কলুষিত। ২০৩০ সালের মধ্যে দেশের ৪০ শতাংশ নাগরিকই পানীয় জল পাবেন না। ২০২০ সালের মধ্যেই নয়াদিল্লি, চেন্নাই, হায়দরাবাদ সহ ২১টি শহরে ভূগর্ভস্থ পানি শেষ হয়ে যাবে। ফলে ১০ কোটি মানুষ সমস্যায় পড়বেন।

পানির মানের সূচকে সারা বিশ্বের ১২২টি দেশের মধ্যে ভারতের স্থান ১২০। এই পরিস্থিতিতে নীতি আয়োগের রিপোর্ট অত্যন্ত উদ্বেগজনক। এই রিপোর্টে বলা হয়েছে, সারা দেশে ভূগর্ভস্থ পানি কমে যাচ্ছে। ২০৩০ সালের মধ্যে দেশে জোগানের তুলনায় জলের চাহিদা দ্বিগুণ হয়ে যাবে। অবিলম্বে যদি এই সমস্যা দূর করার জন্য ব্যবস্থা না নেওয়া হয়, তাহলে পরিস্থিতির অবনতি হবে। পানিসঙ্কটের ফলে ২০৫০ সালের মধ্যে ভারতের জিডিপি-র ৬ শতাংশ ক্ষতি হতে পারে।

নীতি আয়োগের রিপোর্টে বলা হয়েছে, পানিসম্পদ রক্ষার ক্ষেত্রে সবচেয়ে ভাল কাজ করেছে গুজরাত। মধ্যপ্রদেশ, অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্ণাটক ও মহারাষ্ট্রও ভাল কাজ করেছে। এক্ষেত্রে সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতি ঝাড়খণ্ড, হরিয়ানা, উত্তরপ্রদেশ ও বিহারের। -এবিপি আনন্দ