নোট বদলে কয়েন
দেশটির সরকার আশা করছে এতে খাদ্য পাচার বন্ধ হবে।

ভেনেজুয়েলাতে ‘নোট বদলে কয়েনে’ রূপান্তরিত হচ্ছে

ভেনেজুয়েলাতে দীর্ঘদিন যাবত চলছে অর্থনৈতিক সংকট।

দেশটির মুদ্রা বলিভার ভয়াবহ ভাবে তার মূল্য হারিয়েছে।

দেশটির মুদ্রাস্ফীতির হার বিশ্বে সবচাইতে বেশি।

রয়েছে মারাত্মক খাবারের সংকট। সেজন্য দাংগা আর দোকানে গিয়ে খাদ্য দ্রব্য লুটপাটের ঘটনা সেখানে প্রায়শই ঘটে।

কিন্তু এর মধ্যেই দেশটির সরকার ঘোষণা দিয়েছে সেখানকার সকল ১০০ বলিভারের নোট বদলে কয়েনে রূপান্তরিত করা হবে।

আর সেটি করা হবে ৭২ ঘণ্টার মধ্যেই। কিন্তু কেন?

দেশটির সরকার আশা করছে এতে খাদ্য পাচার বন্ধ হবে আর খাবারের সংকট নিয়ন্ত্রণ করা যাবে।

ভেনেজুয়েলাতে খাবারের সংকটের কারণে সরকার খাদ্য দ্রব্যে ভর্তুকি দিয়ে থাকে।

ভেনেজুয়েলার সেই ভর্তুকি দেয়া খাবার বেশি দামে সীমান্ত পার হয়ে পাচারকারীরা কলোম্বিয়াতে বিক্রি করছে।

দেশটির প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো বলছেন, বিষয়টি সাথে সাথে কার্যকর হলে পাচারকারীরা আর তাদের অর্থ বদলানোর সুযোগ পাবে না।

পাচারকারীদের কাছে ১০০ বলিভারের নোট থাকলে অচল নোট নিয়ে তাদের ঘুরতে হবে।

তবে এই সিদ্ধান্তের সমালোচকরা বলছেন, এতে সাধারণ মানুষজনও বিপদে পড়বে।

ভারতে ৫০০ ও ১০০০ রুপির নোট বাতিল হয়ে যাওয়ার পর সেগুলো বদলাতে গিয়ে যেমন মানুষজনকে হিমশিম খেতে হয়েছে তেমনি ভেনেজুয়েলাতেও ১০০ বলিভারের নোট বদলাতে মানুষজন বিপদে পড়বে। বিবিসি