নিয়োগ পাওয়ার মাত্র পাঁচ দিন পরে নিজের একাডেমিক রেকর্ডে মিথ্যা তথ্য (ভুয়া ডিগ্রি) দেয়ার বিতর্কের মধ্যে পদত্যাগ করেছেন ব্রাজিলের শিক্ষামন্ত্রী। 

দক্ষিণপন্থী প্রেসিডেন্ট জায়ার বোলসোনারোর সরকারে প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ হিসেবে কার্লোস আলবার্তো ডোকোটেলিকে শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে নিয়োগ দেয়া হয়।

সরকারের মুখপাত্র পাউলো রবার্তো বলেছেন, কয়েকদিনের বিতর্কের মধ্যে ডোকোটেলি ব্রসিলিয়ায় বোলসোনারোর কাছে তার পদত্যাগপত্র দাখিল করেন।

গত সপ্তাহে আব্রাহাম ওয়েনট্রাইবের স্থলে বোলসোনারো ডোকোটেলির নাম ঘোষণা করেন। টুইটারে চীন বিরোধী বর্ণবাদী মন্তব্যসহ ধারাবাহিক বিতর্কের পরে জুনের মাঝামাঝি আব্রাহাম ওয়েনট্রাইব পদত্যাগ করেন।

ডোকোটেলি দাবি করেন, তিনি ব্রাজিলের গেটুলিও ভার্গাস ফাউন্ডেশন থেকে মাস্টার্স, আর্জেন্টিনার ইউনিভার্সিটি রোজারিও থেকে ডক্টরেট এবং জার্মানির উইপারটল ইউনিভার্সিটি থেকে পোস্ট ডক্টরেট ডিগ্রী অর্জন করেছেন।

ডোকোটেলিকে শিক্ষামন্ত্রী নিয়োগের পরে তাঁর ডিগ্রী যাচাই করে “ফিউচার এক্স মিনিস্টার” শিরোনামে ব্রাজিলিয়ান মিডিয়ায় নিউজ প্রকাশিত হয়।

বোলসোনারো ডোকোটেলির শিক্ষাগত যোগ্যতা মূল্যায়ন করে গত সপ্তাহে তাকে শিক্ষামন্ত্রী হিসেবে ঘোষণা দেন।

শুক্রবার রোজারিও ইউনিভার্সিটির রেক্টর জানান, এই ইউনিভার্সিটি থেকে ডোকোটেলি কোন ডক্টরেট ডিগ্রী নেননি এবং কোন থিসিস করেননি।

জবাবে সোমবার ডোকোটেলি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় জুরি তাকে থিসিস পরিবর্তন করতে বলেছে তবে অর্থের সংকটের কারনে তিনি ব্রাজিলে ফিরে আসেন।

জার্মানির উইপারটল ইউনিভার্সিটি এক বিবৃতিতে জানায়, ডোকোটেলি সেখান থেকে কোন ডিগ্রী গ্রহণ করেননি।

ব্রাজিলিয়ান ইউনিভার্সি জানায়, ২০১৬ থেকে ২০১৮ সালে তিনি ইউনিভার্সিটির প্রফেসর ছিলেন না , যেটি ডোকোটেলি তার সিভিতে উল্লেখ করেছেন।