Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ৪:০৯ ঢাকা, রবিবার  ১৮ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

ভারতে ভুয়ো ছবি ব্যবহার
অল্ট নিউজ বলছে আসলে ২০০৬ সালে ছবিটি তুলেছিলেন স্পেনের এক আলোকচিত্রী

ভুয়ো ছবির কারণে বিদ্রূপের পাত্র ভারত সরকার

স্পেন-মরক্কো সীমান্তের একটি ছবি ব্যবহার করে নিজেদের কৃতিত্ব জাহির করার জন্য ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে নিয়ে টুইটারে প্রবল হাসি-মশকরা শুরু হয়েছে।

অল্ট নিউজ ওয়েবসাইটে প্রকাশিত একটি খবরে বুধবার দেখানো হয়, মন্ত্রণালয় তাদের বার্ষিক রিপোর্টে ওই ছবিটি ব্যবহার করে দাবি করেছে সীমান্ত এলাকায় তারা ফ্লাডলাইট বসিয়েছে।

কিন্তু ওই ওয়েবসাইটটি জানায়, ২০০৬ সালে স্প্যানিশ আলোকচিত্রী হাভিয়ার মোয়ানো ওই ছবিটি তুলেছিলেন সেউটা দ্বীপে।

এই চরম বিব্রতকর অভিযোগ ওঠার পর ভারত সরকারের পক্ষ থেকে গোটা ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলেও জানা গেছে।

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকারকে এর আগেও সরকারি প্রেস বিবৃতি বা রিপোর্টে ভুয়ো কিংবা ফোটোশপ করা ছবি ব্যবহারের জন্য অস্বস্তিতে পড়তে হয়েছে।

ভারতের সরকারি পরিচালনাধীন প্রেস ইনফরমেশন ব্যুরো ২০১৫ সালে চেন্নাইয়ের বন্যা সরেজমিনে পরিদর্শরত প্রধানমন্ত্রী মোদির একটি ছবি টুইট করেছিল – যেটি পরিষ্কার বোঝা গিয়েছিল যে এডিট করা!

অল্ট সংবাদ সংস্থা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নতুনতম কারসাজিটি ধরিয়ে দেওয়ার পর ভারতেই অনেকে সরকারকে নিয়ে হাসিঠাট্টা করছেন।

এনডিটিভি ওয়েবসাইট জানাচ্ছে, এই ঘটনা সামনে আসার পর স্বরাষ্ট্র সচিব রাজীব মেহরিষি কর্মকর্তাদের কৈফিয়ত তলব করেছেন।

তিনি বলেছেন, “যদি দেখা যায় এটা মন্ত্রণালয়ের ভুল, তাহলে আমরা অবশ্যই ক্ষমা চাইব।”

ভারতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সীমান্তে চোরাচালান ও অনুপ্রবেশ রোখার জন্য অবশ্য সত্যিই ফ্লাডলাইট বসানোর কাজ শুরু করেছে।
বার্ষিক প্রতিবেদনে তারা জানিয়েছে, পাকিস্তান ও বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের সীমান্তে এরই মধ্যে ৬৪৭ কিলোমিটার বা ৪০২ মাইল এলাকাতে ফ্লাডলাইট বসানো হয়ে গেছে।

কিন্তু এই তথ্যের সঙ্গে কীভাবে একটি ভুল ছবি প্রতিবেদনে জায়গা করে নিল, সেটাই এখনও বোঝা যাচ্ছে না বলে কর্মকর্তারা বলছেন।- সূত্র বিবিসি