তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেচেপ তাইয়িপ এর্দোয়ান
তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেচেপ তাইয়িপ এর্দোয়ান

ভারতও উদার মানসিকতা দেখাবে, প্রত্যাশা এরদোগানের

পাক-ভারত চলমান যুদ্ধাবস্থায় কারোই লাভ হবে না উল্লেখ করে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান বলেছেন, ভারতের কাছ থেকেও পাকিস্তানের মত উদার মানসিকতা প্রত্যাশা করেন তিনি।

এরদোগান বলেন, আটক ভারতীয় পাইলটকে মুক্তি দিয়ে পাকিস্তান যে ইতিবাচক মানসিকতা দেখিয়েছে পাকিস্তানকে অবশ্যই অভিনন্দন জানাতে হবে। আমরা আশা করি যে ভারতের বন্ধুরা একইভাবে ইতিবাচক পদক্ষেপ ও উদার মানসিকতা দেখাবে।

আগামী ৩১ মার্চ আসন্ন স্থানীয় নির্বাচনের প্রস্তুতির অংশ হিসেবে শনিবার উত্তরাঞ্চলীয় ট্রাবজন শহরে একটি গণ সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন। খবর আনাদলুর।

চলমান উত্তেজনা নিরসনে তুরস্ক সবধরনের সহায়তা করবে জানিয়ে প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান বলেন, পাক-ভারত চলমান উত্তেজনা নিরসনে যা কিছু দরকার তা করতে প্রস্তুত রয়েছে তুরস্ক।

তিনি বলেন, ‘আমরা ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে সংকট সমাধানে আমাদের যা করতে হবে তা নিশ্চিত করব এবং স্থায়ী শান্তি প্রতিষ্ঠায় তুরস্কের প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।’

যুদ্ধ কোনো দেশের জন্যই কল্যাণকর নয় ইঙ্গিত দিয়ে এরদোগান বলেন, ‘তীব্র উত্তেজনা এবং আগুন জ্বালানো তেল কারও উপকারে আসে না।’

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট আরও জানান, এই ইস্যুতে উত্তেজনা নিরসনে কী করা উচিত সে বিষয়ে পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট আরিফ আলভি ও প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গে তিনি টেলিফোনে আলাপ করেছেন।

প্রসঙ্গত, গত ১৪ ফেব্রুয়ারি ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় দেশটির আধাসামরিক বাহিনীর গাড়িবহরে হামলায় অন্তত ৪০ সেনা নিহত হন। এই আত্মঘাতী হামলার দায় স্বীকার করেছে পাকিস্তানভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মোহাম্মদ। ভারত এ হামলার পেছনে পাকিস্তানের মদদ রয়েছে বলে দাবি করে আসছে।

এই হামলার জেরে গত মঙ্গলবার কাশ্মীরের নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে পাকিস্তানের বালাকোটে বিমান হামলা চালায় ভারতীয় বাহিনী। হামলায় ২০০ থেকে ৩০০ জঙ্গি নিহত হয় বলে দাবি করেছে দেশটি।

মঙ্গলবার ভারতীয় বিমানবাহিনী পাকিস্তানে বালাকোট এলাকায় সীমান্ত নিয়ন্ত্রণ রেখা পার হয়ে বোমা হামলা চালায়। ভারতীয় গণমাধ্যম দাবি করে এতে অনেক জঙ্গি হতাহত হয়েছে। তবে পাকিস্তান বলছে, এতে তাদের দেশে কোনো হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। এর পর এদিন বিকালে পাকিস্তান সীমান্তবর্তী এলাকায় ব্যাপক গোলা বর্ষণ করে। এতে ভারতীয় দুই নাগরিক নিহত হওয়া দাবি করা হয়েছে। বুধবার সকালে পাকিস্তানের অভ্যন্তরে ভারতীয় দুটি বিমান ঢুকে পড়লে পাকিস্তান তা ভূপাতিত করে। এ ঘটনায় দুইজন নিহত ও এক ভারতীয় পাইলটকে আটক করেছে পাকিস্তান।

দুই দেশের মধ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে আটক ভারতের পাইলটকে মুক্তি দিচ্ছে পাকিস্তান। বৃহস্পতিবার পাক ন্যাশনাল অ্যাসেম্বলিতে এমন ঘোষণা দেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

পাইলটকে মুক্তির কারণ হিসেবে ইমরান খান বলেছেন, শান্তির বার্তা দিতেই ভারতীয় পাইলটকে মুক্তি দেয়া হচ্ছে। তবে তিনি এও হুশিয়ারি দেন যে, পাইলটের মুক্তির সিদ্ধান্তকে পাকিস্তানের দুর্বলতা ভাববেন না। শুক্রবার রাতে উইং কমান্ডার অভিনন্দনকে ভারতের হাতে তুলে দেয় পাকিস্তান।