Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ১১:৩৬ ঢাকা, শনিবার  ১৭ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

‘ব্রিটেনের বেরিয়ে যাওয়া ঠেকাতে ব্রাসেলস সম্মেলনে অনেক কিছু করার আছে’

ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড টাস্ক বলেছেন, ইউরোজোন থেকে প্রথম দেশ হিসেবে ব্রিটেনের বেরিয়ে যাওয়া ঠেকাতে একটি চুক্তির লক্ষ্যে ব্রাসেলস সম্মেলনে ইউরোপীয় নেতাদের অনেক কিছু করার আছে।
ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী ডেভিড ক্যামেরন দুই দিনের বৈঠকের শুরুতে একটি ‘বিশ্বাসযোগ্য’ সংস্কারমূলক চুক্তিতে পৌঁছাতে অন্যান্য দেশের প্রধানমন্ত্রীদের আহবান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, চুক্তি হলে ব্রিটেন ইইউ’র সদস্য থাকবে কি থাকবে না তা নিয়ে আগামী জুনে একটি গণভোট করার সুযোগ পাবেন তিনি।
তবে ফ্রান্স ও ইউরোপের পূর্বাঞ্চলের দেশগুলোর উদ্বেগের মুখে টাস্ক সতর্কবাণী করেন, ব্রিটেনের বেরিয়ে যাওয়া ঠেকাতে একটি চুক্তিতে পৌঁছানোর লক্ষ্যে প্রথম দিনের আলোচনায় অনেক বিষয় উঠে আসেনি।
তিনি শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘এখন আমি শুধু বলতে পারি, আমাদের অনেক অগ্রগতি হয়েছে। তবে এখনও প্রয়োজনীয় আরও অনেক কিছু করার আছে।’
চুক্তির প্রতিবন্ধকতা দূর করতে টাস্ক গতরাতে ক্যামেরন ও ইউরোপীয় কমিশন প্রেসিডেন্ট জ্যাঁ-ক্লদ জাংকারের সঙ্গে সরাসরি কথা বলেন।
টাস্ক ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওলাঁদ, বেলজিয়ামের প্রধানমন্ত্রী চার্লস মাইকেল ও চেক প্রধানমন্ত্রী বহুস্লাভ সবতকার সঙ্গে বৈঠক করবেন।
বার্তা সংস্থা এএফপি’র খবরে বলা হয়েছে, যেসব দেশ মুদ্রা হিসেবে ইউরো ব্যবহার করে না তাদের রক্ষাকবচের জন্য ক্যামেরনের দাবির ব্যাপারে ওলাঁদ রক্ষশীল। অন্যদিকে ইইউকে আরো নিবিড় ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্য থেকে ব্রিটেনকে বাদ দেয়ার বিষয়ে আপত্তি মাইকেেেলর।
চেক প্রধানমন্ত্রী ইউরোপের পূর্বাঞ্চলের চারটি দেশের একটি দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। এসব দেশ ব্রিটেনে কর্মরত ইইউ অভিবাসীদের কল্যাণের জন্য লাভজনক অর্থ প্রদান সীমিত করতে ক্যামেরনের অনুরোধের ব্যাপারে আপত্তি জানিয়ে আসছে।
স্পেনের প্রধানমন্ত্রী মারিয়ানো রাজয় বলেন, তিনি চুক্তির ব্যাপারে আশাবাদী। ইইউ সম্মেলন শুরু হয়েছে শুক্রবার গ্রিনিচ মান সময় ১০ টায়।
তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি সবকিছু ভালই চলছে। আমি আশা করি আগামীকাল একটি চুক্তি হবে।’
সম্মেলনের শুরুতে ক্যামেরন একটি চুক্তিতে উপনীত হওয়ার জন্য সবাইকে আহবান জানিয়েছেন।
তিনি ব্রিটিশ জনগণের কাছে বিশ্বাসযোগ্য হয় এমন একটি প্যাকেজে উপনীত হওয়ার অনুরোধ জানিয়েছেন। তিনি বলেন, আগামী প্রজন্মের জন্য বিষয়টি নিস্পত্তি করার এখনই সুযোগ।