ব্রেকিং নিউজ

রাত ১১:২৮ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ২০শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ডিএমপি কমিশনার মোঃ আছাদুজ্জামান মিয়া
ডিএমপি কমিশনার মোঃ আছাদুজ্জামান মিয়া

“ব্যক্তির নয়, আমরা দেশের জন্য কাজ করি” – ডিএমপি কমিশনার

ডিএমপি কমিশনার মোঃ আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, ‘আমরা দেশের জন্য কাজ করি কোন ব্যক্তির জন্য নয়।’ ডিউটির কারণে অনেক পুলিশ সদস্যর ইবাদত না করতে পারার বিষয়ে তিনি বলেন, মানুষকে নিরাপত্তা দেয়া বড় ইবাদত।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সে আজ বুধবার সকাল ১০ টায় ডিএমপি’র সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সাথে ঈদ পরবর্তী পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে একথা বলেন ডিএমপি কমিশনার মোঃ আছাদুজ্জামান মিয়া।

সকলকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে কমিশনার বলেন, ‘টিম ডিএমপি’র সদস্য’ একটি পরিবারের মত কাজ করছে। ‘আমরা দেশের জন্য কাজ করি কোন ব্যক্তির জন্য নয়।’ এবারের ঈদে সারা বাংলাদেশের আইন শৃংখলা, জননিরাপত্তা অত্যান্ত ভালো ছিল। সব শ্রেণী পেশার মানুষ আমাদের ভূমিকাকে প্রশংসা করেছে। রমজান, রথযাত্রা ও ঈদ কোন রকম অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়ায় সম্পন্ন হয়েছে। ডিএমপি’র সদস্য আপনারাই রাতদিন অক্লান্ত পরিশ্রম করে দুই একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ব্যতিত কোন রকম চুরি, ছিনতাই, ডাকাতির মত ঘটনা ঘটতে দেননি। আমরা দায়িত্ব পালনকালে অনেকে ঈদের নামাজ, তারাবির নামাজ আদায় করতে পারিনি। আমাদের ডিউটি ইবাদতের সমতুল্য। মানুষকে নিরাপত্তা দেয়া বড় ইবাদত।

তিনি আরও বলেন, কোন রকম ছিনতাই চুরি ছাড়ায় নগরবাসী ঈদের কেনাকাটা গভীর রাত পর্যন্ত করতে পেরেছে আপনাদের পেশাদারিত্বের সাথে দায়িত্ব পালনের জন্য। ঈদে গণভবনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাথে কুশল বিনিময়ের সময় পুলিশের দায়িত্ব পালন, জননিরাপত্তা প্রদান, আইন শৃংখলা পরিস্থিতি ভালো রাখার জন্য আমাদেরকে ভূয়সী প্রশংসা করেন। আমরা প্রতিটি ঈদের জামাতকে নির্বিচ্ছিন্ন নিরাপত্তা দিয়েছি। সিটি, ডিবি, থানা পুলিশ ও সাদা পোশাকের পুলিশের তৎপরতায় ও জনসম্পৃক্ততার ফলে গত এক বছরে ঢাকা শহরে কোন জঙ্গি তৎপরতা নেই। ব্লক রেইড, চেকপোস্টের মাধ্যমে আমরা কাঁধে কাঁধ রেখে কাজ করে যাচ্ছি। আমরা আরও কাজ করে যাবো রাষ্ট্রের জন্যে , দেশের জন্যে ও দেশের মানুষের জন্যে।

এ সময় উপস্থিত অফিসার ও ফোর্সের সাথে ডিএমপি কমিশনার ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন এবং সঙ্গে ছিলেন ডিএমপি’র অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (সিটি) মনিরুল ইসলাম, যুগ্ম পুলিশ কমিশনার ওয়াই এম বেলালুর রহমান, যুগ্ম পুলিশ কমিশনার মোঃ আনোয়ার হোসেনসহ উধ্বর্তন কর্মকর্তাবৃন্দ।