ব্রেকিং নিউজ

সকাল ১১:০৪ ঢাকা, শুক্রবার  ১৭ই আগস্ট ২০১৮ ইং

বেতন বৈষম্য দূরীকরণ কমিটি পুনর্গঠন

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতকে প্রধান করে সাত সদস্য বিশিষ্ট ‘বেতন বৈষম্য দূরীকরণ সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি’ পুনর্গঠন করা হয়েছে।

বুধবার মন্ত্রিসভা বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এ কমিটির কার্যক্রম আগামী ১৬ অক্টোবরের পর শুরু হবে বলে জানিয়েন অর্থমন্ত্রী।
কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু, বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ, জনপ্রশাসনমন্ত্রী সৈয়দ আশারাফুল, শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান।
এই কমিটির কার্যপরিধি হচ্ছে, জাতীয় বেতন স্কেল বাস্তবায়নের লক্ষ্যে অনিষ্পন্ন বিষয়গুলোর পর্যালোচনা, বেতন স্কেলে বৈষম্যের বিষয়ে প্রাপ্ত অভিযোগগুলো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা।
এছাড়া বিষয়গুলোর নিষ্পত্তির লক্ষে প্রয়োজনীয় সুপারিশ এবং সংশ্লিষ্ট অন্যান্য বিষয়ে পর্যালোচনা করে প্রয়োজনীয় সুপারিশ প্রদান করা।
মন্ত্রিপরিষদ সচিব, প্রধানমন্ত্রীর মুখ্য সচিব, অর্থ বিভগ ও জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের জ্যেষ্ঠ সচিব এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়/বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব, সচিব বা ভারপ্রাপ্ত সচিব এই কমিটিকে সহায়তা করবেন বলে আদেশে বলা হয়েছে। আর অর্থ বিভাগ কমিটিকে সাচিবিক সহায়তা দেবে।
২০১৪ সালের ২৪ এপ্রিল অর্থমন্ত্রীকে আহ্বায়ক করে এবং তথ্য ও শিক্ষামন্ত্রী, অর্থ প্রতিমন্ত্রী এবং জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রীকে সদস্য করে বেতন বৈষম্য দূরীকরণ সংক্রান্ত মন্ত্রিসভার কমিটি গঠন করা হয়।
তবে চলতি মাসে পে-স্কেল ঘোষণা করার পর বেতন বৈষম্য দূর, মর্যাদা ফিরিয়ে দেয়া ও স্বতন্ত্র বেতন-স্কেলসহ চার দফা দাবিতে দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা আন্দোলন করে আসছেন। তাদের আন্দোলনের প্রেক্ষিতে বেতন বৈষম্য দূরীকরণ কমিটিকে শিক্ষকদের সঙ্গে আলোচনা করে এর সমাধান করতে বলা হয়।
তবে শিক্ষকরা অর্থমন্ত্রীর নেতৃত্বে পরিচালিত কমিটির সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি হননি। তারা অর্থমন্ত্রীকে বেতন বৈষম্য দূরীকরণ কমিটি থেকে বাদ দেয়ার দাবি জানান। তবে পুনর্গঠিত এ কমিটিতে অর্থমন্ত্রীকেই প্রধান করে প্রজ্ঞাপন জারি করা হলো।