ব্রেকিং নিউজ

সকাল ১০:৪১ ঢাকা, মঙ্গলবার  ২৫শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

‘কুইন অব টেররিস্ট’

বেগম খালেদা জিয়াকে গ্রেফতার করে আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়ে সরকারি দলের সদস্য সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত বলেন, নির্মম, নিষ্ঠুরভাবে যারা মায়ের পেটের ব্রুন হত্যা করে তারা মানবতার শত্রু। এদের সাথে কোন ধরনের সংলাপ বা আলোচনা হতে পারে না।
তিনি বলেন, সন্ত্রাস ও গণতন্ত্র এক সাথে চলতে পারে না। সন্ত্রাস, নৈরাজ্য ও নাশকতার বিরুদ্ধে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে লড়াই করতে হবে।
সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত ডেইলি স্টারের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, বেগম খালেদা জিয়া এখন ‘বাংলাদেশের মোল্লা ওমর। কুইন অব টেররিস্ট।’ আজ সংসদে অনির্ধারিত আলোচনায় অংশ নিয়ে এ কথা বলেন।

সরকারি দলের সদস্য শেখ ফজলুল করিম সেলিম আলোচনায় অংশ নিয়ে বলেন, আন্দোলনের নামে দেশ জঙ্গি ও সন্ত্রাসীদের হাতে জিম্মি হতে পারে না। বেগম খালেদা জিয়া সন্ত্রাস করে দেশকে অকার্যকর রাষ্ট্রে পরিণত করতে চান। এটা দেশের মানুষ মেনে নেবে না।
তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া একজন বিবেক বর্জিত মহিলা। কোন বিবেকবান মানুষ শিশু, নারী, নিরীহ মানুষকে এভাবে পুড়িয়ে মারতে পারে না। বিএনপি-জামায়াতের আন্দোলনের নামে যে জঙ্গি তৎপরতা তা আল-কায়দা ও তালেবানদের সাথে তুলনা করা যায়। আল-কায়দা, তালেবান আর খালেদা জিয়ার মধ্যে কোন পার্থক্য নেই। আল-কায়দার সাথে যেমন আলোচনা হতে পারে না। তেমনি বেগম খালেদা জিয়ার সাথে আলোচনা হতে পারে না।

শেখ ফজলুল করিম সেলিম বলেন, বেগম খালেদা জিয়া আইনের উর্ধ্বে নয়। তিনি যে ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড করছেন অবশ্যই তার বিচার পাওয়া উচিত। আইন-শৃংখলা বাহিনী এ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে।