বুড়িগঙ্গায় ট্রলার ডুবিতে নিখোঁজ ৪০

নারায়ণগঞ্জ সদরের আলীরটেক থেকে ডিগ্রীর চর ঘাটে বুড়িগঙ্গা নদী পারাপারের সময় যাত্রীবাহী লঞ্চের ধাক্কায়  ৫০/৬০ জন যাত্রী নিয়ে একটি কাঠের তৈরী ট্রলার ডুবির ঘটনা ঘটেছে। শনিবার ভোরে নদীর মাঝখানে এ ঘটনা ঘটে। এসময় ১০/১২ জন যাত্রী নদীর তীরে উঠতে পেরেছে বলে জানিয়েছেন ওই ট্রলারের এক যাত্রী।
ওই ট্রলারে থাকা লুৎফা বেগম গণমাধ্যমকে জানান, নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জ থেকে সদরের আলীরটেক রাধানগর এলাকায় সোলেমান শাহ (লেংটার) মাজারে উরশে আসেন শুক্রবার। শনিবার ভোরে মাজার জিয়ারত শেষে বুড়িগঙ্গা নদী দিয়ে কাঠের তৈরী ট্রলারযোগে বাড়ি ফেরার পথে আলীরটেক এলাকা দিয়ে ডিগ্রীরচর ঘাটে আসার সময় মাঝ নদীতে সকাল ৭টায় ঢাকাগামী একটি লঞ্চের ধাক্কায় তাদের বহনকারী ট্রলারটি সঙ্গে সঙ্গে ডুবে যায়।
লুৎফা বেগম আরো জানান, ওই ট্রলারে আমার স্বামী সেলিম খান, মেয়ে মৌসুমী, ছেলে ইমন, গানের মাস্টার সেলিমসহ ৫০/৬০ জন লোক ছিল। এর মধ্যে আমিসহ ১০/১২ জন সাঁতড়িয়ে তীরে উঠতে পেরেছি।
তিনি বলেন, আমার পরিবারের তিনজনকে খুঁজে পাচ্ছিনা। আমাদের বাড়ি সিদ্ধিরগঞ্জ পুল এলাকায়। ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা উদ্ধার অভিযান চালাচ্ছে।

সর্বশেষ সংশোধিত: , মাধ্যম: