ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৭:০৫ ঢাকা, বৃহস্পতিবার  ১৬ই আগস্ট ২০১৮ ইং

ড. তৌফিক-ই-এলাহী চৌধুরী
ড. তৌফিক-ই-এলাহী চৌধুরী, ফাইল ফটো

‘বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধি নিয়ে রাজনীতির কিছু নেই’

বিদ্যুতের দাম ৫ শতাংশের কিছু বেশি বাড়ানোয় জনগণের ওপর তেমন প্রভাব ফেলবে না বলে দাবি করেছেন প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদবিষয়ক উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী। তিনি বলেন, বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির কারণে মামুলি যে প্রভাব ফেলবে তা খুবই অল্প। এটি নিয়ে রাজনীতি করার কিছু নেই।

শুক্রবার সকালে বিদ্যুৎ ভবনে এক কর্মশালার উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

তৌফিক-ই-ইলাহী বলেন, সাম্প্রতিক মূল্যবৃদ্ধির পরও বিদ্যুতে চার হাজার কোটি টাকা ঘাটতি থাকে। তবে প্রধানমন্ত্রী এই টাকাকে ঘাটতি না বলে দেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নের জন্য বিনিয়োগ বলে উল্লেখ করেন।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন সব কিছু বিবেচনায় নিয়েই এ মূল্য নির্ধারণ করেছে। এ বিষয়ে আমি কিছু বলতে পারব না।

বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য ব্যবহৃত তেলের মূল্য কমিয়ে বিদ্যুতের দাম স্থিতিশীল রাখা যেত কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, বিদ্যুৎ বলুন আর যাই বলুন- এক জায়গায় ভর্তুকি কমালে আরেক জায়গায় বাড়ে।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রতি ইউনিট বিদ্যুতের দাম গড়ে ৩৫ পয়সা বা ৫ দশমিক ৩ শতাংশ বাড়ানোর সিদ্ধান্তের কথা জানায় বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)। বর্ধিত দাম ডিসেম্বর থেকে কার্যকর হবে বলে জানানো হয়।

বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর ফলে বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল সরকারের সমালোচনা করছে। বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর ফলে প্রতিবাদে ৩০ নভেম্বর হরতাল ডেকেছে সিপিবি, বাসদ ও গণতান্ত্রিক বামমোর্চা।