Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৯:২৩ ঢাকা, সোমবার  ১৯শে নভেম্বর ২০১৮ ইং

“বিদেশী হত্যায় জড়িত সন্দেহভাজন বিএনপি নেতা দুবছর আগেই দেশত্যাগ করে মালয়েশিয়ায়”

ইতালীয় নাগরিক হত্যায় সরকার ঢাকা মহানগর বিএনপি নেতা সাবেক কমিশনার এমএ কাইয়ুমকে ‘বলির পাঁঠা’ বানাতে চায় বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।
কাইয়ুম দাবি করে বলেন, সরকার আমাকে ‘বলির পাঁঠা’ বানাতে চায়। ইতালীয় নাগরিক হত্যাকাণ্ড নিয়ে সরকার ‘জজ মিয়া’ নাটক সাজাচ্ছে।
বর্তমানে মালয়েশিয়ায় অবস্থারত এ বিএনপি নেতা গণমাধ্যমকে বলেন, ডিবি পুলিশ আমার ভাই মতিনকে সাতদিন আগে বাসা থেকে আটক করে নিয়ে গেছে। কিন্তু আটকের বিষয়টিও পুলিশ স্বীকার করছে না। সে রাজনীতির সঙ্গে জড়িত না। কিন্তু এখন হয়তো হাবিবুন-নবী সোহেলের ছোট ভাইয়ের (রংপুর মহানগর বিএনপি নেতা রাশেদ) মতো ঘটনা ঘটবে।
ইতালীয় নাগরিক হত্যায় আমার সম্পৃক্ততা আছে- ছোট ভাইয়ের কাছ থেকে জোর করে এমন স্বীকারোক্তি নিয়ে হয়তো পুলিশ তাকে গ্রেফতার দেখাবে বলে মনে করেন কাইয়ুম।
এরআগে গুলশানে ইতালীয় নাগরিক সিজারি তাভেল্লা হত্যার সন্দেহভাজন হিসেবে কথিত ‘বড় ভাই’ কাইয়ুমের নাম বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

কমিশনার কাইয়ুম দুবছর আগে দেশত্যাগ করে মালয়েশিয়ায় চলে যান।
এছাড়া বাড্ডার বাসার সামনে থেকে কাইয়ুমের ছোট ভাই এমএ মতিনকে ডিবি পরিচয়ে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা গত ২০ অক্টোবর আটক করে নিয়ে যায় বলে পরিবার থেকে অভিযোগ করা হয়। তবে পুলিশ এখন পর্যন্ত তা স্বীকার করেনি। যুগান্তর

 

 

http://www.jugantor.com/current-news/2015/10/28/343867