ব্রেকিং নিউজ

দুপুর ১:৪৪ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

প্রধান বিচারপতি
প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা, ফাইল ফটো

‘বিচার বিভাগের কিছু অসঙ্গতির জন্য অনেকাংশে আইনজীবীরা দায়ী’

প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বলেছেন, আমাদের বিচার বিভাগের কিছু অসঙ্গতির জন্য অনেকাংশে আইনজীবীরা দায়ী। আমরা যখন বিচার করি তখন অনেক অভিজ্ঞ আইনজীবীরা আইনের ব্যাখ্যা আদালতে দিয়ে থাকেন। কিন্তু এ ধরনের আইনের ব্যাখ্যা দেওয়ার মত আইনজীবী আজ পাওয়া যাচ্ছে না। যার কারণে বিচারকদেরকেই আইনের ব্যাখ্যা দিতে হচ্ছে। এতে অনেক সময় ত্রুটি থেকে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, আইনজীবী হিসেবে যদি আপনারা আইনের ব্যাখ্যা দেয়ার ক্ষেত্রে ভূমিকা পালন না করেন, শুধু মামলায় জামিন ও নিষেধাজ্ঞার আবেদন নিয়ে বেশি আগ্রহ দেখান তাহলে বিচার বিভাগ ও আইন পেশা একদিন বিলীন হয়ে যাবে।

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে বুধবার আয়োজিত বাসন্তী উৎসবে প্রধান বিচারপতি এ সব কথা বলেন।

প্রধান বিচারপতি বলেন, আইনের শাসন ও বিচার বিভাগের স্বাধীনতা রক্ষায় আইনজীবীদের এগিয়ে আসতে হবে। বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিয়ে আইনজীবী সংগঠনকে কোন বক্তব্য দিতে দেখা যায় না। এক্ষেত্রে আইনজীবীদের ভূমিকা রাখতে হবে।

প্রধান বিচারপতি বলেন, শাসনতন্ত্র ও আইন প্রণয়নে রাষ্ট্রকে নৈতিকতা বজায় রাখতে হবে। নৈতিকতা বজায় রেখে আইন প্রণয়নের পরই জনগণকে বলতে হবে তোমরা আইন মেনে চলো। তখনই তারা আইন মেনে চলবে। কোন রাষ্ট্র যদি এই নৈতিকতা বজায় না রেখে আইন প্রণয়ন করে তাহলে সে দেশে কোন দিন শান্তি আসবে না।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এল এল এম ল’ইয়ার্স এসোসিয়েশন আয়োজিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি অ্যাডভোকেট একেএম ফয়েজ। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শেখ আলী আহমেদ খোকনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন হাইকোর্টের বিচারপতি একেএম আব্দুল হাকিম, বিচারপতি নাইমা হায়দার, বিচারপতি এমআর হাসান, সুপ্রিম কোর্ট বারের সভাপতি ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. বোরহান উদ্দিন খান, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক এসএম মুনীর প্রমুখ।