ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৩:২৩ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

বিএসএফের পিটুনিতে বাংলাদেশি নিহত

কুড়িগ্রামে ভুরুঙ্গামারী উপজেলার শালঝোড় সীমান্তে এক বাংলাদেশীকে ধরে নিয়ে গিয়ে পিটিয়ে হত্যা করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ)। এসময় অপর এক বাংলাদেশীকে ধরে নিয়ে নির্যাতন ও আটক করে রেখেছে তারা। রোববার গভীর রাতে শালঝোড় বিওপির কাছে ৯৮৮ আন্তর্জাতিক পিলারের পাশে এ ঘটনা ঘটে। নিহত বাংলাদেশী আবদুল গণির (৩৬) বাড়ি শালঝোড় এলাকায়। এছাড়া বিএসএফ ধরে নিয়ে যাওয়ার পর নির্যাতনের শিকার গুরুতর আহত যুবক আলা উদ্দিন (৩০) পালিয়ে এসে রংপুরে আত্মগোপনে থেকে চিকিৎসা নিচ্ছেন বলে জানিয়েছেন শিলখুড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান। বিএসএফের এ হামলার ঘটনায় আরো পাঁচ বাংলাদেশী গরু পাচারকারী নিখোঁজ বলে দাবি করেছেন তিনি। শিলখুড়ি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান জানান, দক্ষিণ ধলডাঙ্গা এলাকার নিহত আব্দুল গণির লাশ ভারতের অভ্যন্তরে পড়ে আছে। ওই গ্রামের আলা উদ্দিন পালিয়ে এসে প্রথমে ভুরুঙ্গামারী হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে ফিরে গেছেন। বর্তমানে তিনি রংপুরে পরিচয় গোপন করে উন্নত চিকিৎসা নিচ্ছেন। গ্রেপ্তার এবং পরবর্তী আইনি জটিলতার কারণে বিস্তারিত তথ্য জানাতে কেউ রাজি হচ্ছেন না বলে জানান তিনি। বিজিবির সুবেদার তরিকুল ইসলাম গণমাধ্যমকে জানান, শালঝোড় সিমান্তের আন্তর্জাতিক পিলার ৯৮৮ এর পাশ দিয়ে ভারতের অভ্যন্তরে একদল বাংলাদেশী গরু পাচারকারী প্রবেশ করে। এসময় বিএসএফের জলজলি ক্যাম্পের জোয়ানরা তাদের উপর হামলা চালালে এ হতাহতের ঘটনা ঘটে। তিনি আরো জানান, সোমবার এ ঘটনার কড়া প্রতিবাদ জানিয়ে পতাকা বৈঠকের মাধ্যমে নিহতের লাশ এবং আহত ব্যক্তিকে হস্তান্তরের দাবি জানিয়ে বিএসএফকে পত্র দেয়া হয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত সাড়া মেলেনি। কুড়িগ্রাম ৪৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল জাকির হোসেন গণমাধ্যমকে বিএসএফের হামলায় একজন নিহত, একজন বিএসএফের হাতে আটক এবং একজন আহত বাংলাদেশের অভ্যন্তরে পালিয়ে আসার কথা স্বীকার করলেও বিস্তারিত তথ্য জানাতে পারেননি।