Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সকাল ১০:৫৯ ঢাকা, শুক্রবার  ১৬ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

বিএসএফের গুলিতে নিহতকে ‘তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী’ বলে দাবি

চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার ঠাকুরপুর সীমান্তে রুহুল আমিন মন্ডল (৩৫) নামে এক ব্যক্তিকে গুলি করে হত্যা করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী-বিএসএফ।
শুক্রবার ভোর ৫টার দিকে উপজেলার ঠাকুরপুর সীমান্তে ৯১/৯২ নং মেইন পিলারের নিকট রাঙ্গীয়ার পোতা নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে।
নিহত রুহুল আমিন বাংলাদেশী নাকি ভারতীয় নাগরিক তা নিয়ে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছে। তাকে ‘তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী’ বলে দাবি করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ বিজিবি এবং বিএসএফ।
নিহত রুহুল আমিন মন্ডল ভারতের নদীয়া জেলার চাপড়া থানার লক্ষ্মীপুর বড়ইগাতী গ্রামের কাসিম মন্ডলের ছেলে এবং বাংলাদেশের চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার সুভলপুর গ্রামের বাবলুর জামাতা ও স্থায়ী বাসিন্দা।
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার ভোরে রুহুল আমিন মন্ডলসহ বেশ কয়েকজন ঠাকুরপুর সীমান্তের ৯১/৯২ নং মেইন পিলারের মাঝ দিয়ে বাংলাদেশ থেকে ভারতে প্রবেশের সময় মালুয়াপাড়া বিএসএফ ক্যাম্পের টহলরত সদস্যরা তাকে গুলি করে হত্যা করে। এরপর বিএসএফ তার লাশ নিয়ে যায়।
ঠাকুরপুর বিজিবি ক্যাম্পের কোম্পানি কমান্ডার আবু তাহের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।
বিজিবি চুয়াডাঙ্গা ৬ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লে. কর্নেল এসএম মনিরুজ্জামান জানান, নিহত রুহুল আমিন মন্ডল সীমান্তে সন্ত্রাসী ও ডাকাতির কারণে বিজিবি-বিএসএফের তালিকাভুক্ত ছিল।
তিনি জানান, গত ২০১৪ সালের ১২ ডিসেম্বর রুহুল আমিন কুপিয়ে মালুয়াপাড়া বিএসএফ কোম্পানি কমান্ডার বাম হাতের চারটি আঙ্গুল এবং ডান হাতের কব্জি প্রায় আলাদা করে ফেলে।