Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৭:০৪ ঢাকা, বুধবার  ১৪ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

বিএনপি লাশ ও ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করছে, “লতিফ”ইস্যুতে হরতাল না করতে ইসলামী দলগুলোর প্রতি আহ্বান- হানিফ

শীর্ষ মিডিয়া ১৮ অক্টোবর ঃ   আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীর বক্তব্যকে ইস্যু করে হরতাল না করতে ইসলামী দলগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ।  তিনি বলেন, স্বাধীনতা বিরোধীদের সঙ্গে মিলে দেশে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টি করবেন না। আওয়ামী লীগ সব সময়ই ইসলামের সেবক ছিল। এখনও আছে। বর্তমান সরকারও ইসলামের উন্নয়ন করবে। এ নিয়ে হরতাল দেয়ার কিছু নেই।

হানিফ আজ শনিবার রাজধানীর ধানমন্ডির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ সব কথা বলেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট ছেলে শেখ রাসেলে’র ৫০তম জন্মদিন উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।
স্বেচ্ছাসেবক লীগের সহ-সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথ এমপি, সহ-সভাপতি মতিউর রহমান মতি, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম লিটম প্রমুখ।

রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া হয়ে বিএনপি এখন লাশ ও ধর্ম নিয়ে রাজনীতি করছে মন্তব্য করে মাহবুব-উল-আলম হানিফ বলেন, খালেদা জিয়া তার বিরুদ্ধে দায়েরকৃত মামলা থেকে রেহাই পাবেন না, জেনেই পরিকল্পিতভাবে হাজিরার দিনে ইসলামী দলসমূহকে দিয়ে হরতাল ডাকার চেষ্টা করছেন। তিনি (খালেদা জিয়া) ও তার দলের নেতারা এখনও ষড়যন্ত্র করছেন।  বিএনপির এক নেতা আব্দুল লতিফ সিদ্দিকীকে ইন্টারপোলের মাধ্যমে দেশে ফিরিয়ে এনে বিচারের মুখোমুখি করার যে দাবি জানিয়েছেন সে প্রসঙ্গে তিনি বলেন, লতিফ সিদ্দিকীকে সরকার মন্ত্রী পরিষদ থেকে অব্যাহতি দিয়েছে। আমরা দল থেকে তাকে বহিস্কার করেছি। তার বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি হয়েছে। সুতরাং তাকে ইন্টারপোলের মাধ্যমে ধরে নিয়ে এসে বিচার করতে হবে এ সমস্ত উদ্ভট দাবি করে দেশে অশান্তি সৃষ্টি করার কোন সুযোগ নেই। কোনো অপরাধীকে যদি ইন্টারপোলের মাধ্যমে দেশে এনে বিচার করতে হয় তাহলে সর্বপ্রথম বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার দুর্নীতিবাজ দুই পুত্র তারেক রহমান ও কোকোকে ফিরিয়ে আনার দাবি জানান আপনারা।
বিএনপি সরকারের বিরুদ্ধে ষড়ষন্ত্র করছে দাবি করে হানিফ বলেন, বিএনপি বুঝতে পেরেছে এদের পায়ের তলায় মাটি নেই। তারা গণধিক্কৃত দলে পরিণত হয়েছে, রাজনৈতিকভাবে দেউলিয়া হয়ে গেছে। তাই তারা ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. পিয়াস করিমের লাশ নিয়ে রাজনীতি করেছে। আপনারা (বিএনপি) কি কারণে পিয়াস করিমের লাশ শহীদ মিনারে নেয়ার দাবি জানালেন। সাধারণ মানুষকে নিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর জায়গা এটা নয়। এটা জাতীয় ঐক্যের প্রতীক। শহীদ মিনারকে অপবিত্র করার কি দরকার?