ব্রেকিং নিউজ

রাত ৮:২৮ ঢাকা, বুধবার  ২৬শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ফাইল ফটো

বিএনপি বলতে এখন আর কিছু নেই

Like & Share করে অন্যকে জানার সুযোগ দিতে পারেন। দ্রুত সংবাদ পেতে sheershamedia.com এর Page এ Like দিয়ে অ্যাক্টিভ থাকতে পারেন।

 

প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচ টি ইমাম বলেছেন, বিএনপি বলতে এখন আর কিছু নেই, তারা জামায়াতের উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছে। পরিকল্পনা করে শিক্ষা-কৃষি-যানবাহনসহ সব ক্ষেত্রে তারা হামলা চালাচ্ছে।দেশ রক্ষা করতে হলে বিএনপি-জামায়াতকে নিশ্চিহ্ন করতে হবে। বুধবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির (ডিআরইউ) সাগর-রুনি মিলনায়তনে হরতাল-অবরোধের নামে সহিংসতা ও সাধারণ মানুষ হত্যার প্রতিবাদে ‘মুক্তিযোদ্ধা বিসিএস কল্যাণ সমিতি’ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। এইচ টি ইমাম বলেন, বাংলাদেশের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র আইএস পর্যন্ত। ২০১৩ সাল থেকে শুধু জামায়াত নয়, অন্যান্য শক্তিও তালেবান, কাশ্মীর, আল-কায়েদার প্রশিক্ষণ নিয়ে ঐক্যবদ্ধ হচ্ছে। এটা একটি আন্তর্জাতিক রূপ। জাওয়াহিরির বক্তব্যেও তার প্রমাণ মেলে। আর বিএনপিও এখন বিএনপি নেই, তারা জামায়াতের সঙ্গে মিশে গেছে। আন্তর্জাতিক সহায়তায় দেশে নাশকতা চলছে এমন ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, সম্প্রতি বাস ও যানবাহনে যেসব পেট্রলবোমা হামলা চালানো হচ্ছে, তা কোনো সাধারণ বোমা নয়। এগুলোতে বিশেষ ধরনের রাসায়নিক দ্রব্য ব্যবহার করায় হতাহতের সংখ্যা বাড়ছে। আন্তর্জাতিক সহায়তা ছাড়া এ ধরনের মারণাস্ত্র বিএনপি-জামায়াত আনতে পারতো না। তিনি দাবি করেন, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে বিজিবি-পুলিশ পাহারায় গাড়ি চললেও তাদের আক্রমণ দেখে মনে হয়, এটি মিলিটারি অপারেশন। প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত লোকেরা রেকি করে এ সব নাশকতা চালাচ্ছে। এ সব প্রতিরোধে পুলিশ, র‌্যাব, বিজিবিকে আরও অস্ত্র দিয়ে শক্তিশালী করতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা বলেন, ৫ই জানুয়ারির নির্বাচন সফল না হলে বাংলাদেশ থাকত না, পাকদেশ হয়ে যেত। এ জন্যই একাত্তরের ভয়াবহতা ছাপিয়ে পরাজিত শক্তি এখন নতুন ধরনের আক্রমণ করছে। তাদের একটাই লক্ষ্য, ক্ষমতায় গিয়ে দেশকে পাকিস্তান বানাবে, পাকিস্তানের সঙ্গে মিশে যাবে।