ব্রেকিং নিউজ

সকাল ১০:০৯ ঢাকা, সোমবার  ২৪শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

মির্জা ফখরুল
সংবাদ সম্মেলন

বিএনপি নির্বাচনের মাধ্যমে সরকার পরিবর্তনে বিশ্বাসী : ফখরুল

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘কালো পতাকা মিছিল’কর্মসূচিতে বাধা দিয়ে সরকার উসকানি দিচ্ছে। বিএনপি সংঘাত চায় না। বিএনপি শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের মাধ্যমে সরকারের ক্ষমতা পরিবর্তনে বিশ্বাস করে। সংঘাত এড়িয়ে গণতান্ত্রিক পথেই নির্বাচন চায়।

বৃহস্পতিবার বিকালে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আজ শান্তিপূর্ণ ‘কালো পতাকা মিছিল’কর্মসূচিতে বাধা দেয়ায় প্রমাণিত হয় অনৈতিকভাবে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার ক্রমান্বয়ে বাংলাদেশকে অনিশ্চিত,অস্থিতিশীল ও সংঘাতময় রাষ্ট্রের দিকে নিয়ে যাচ্ছে। এ সরকার খুন,গুম হত্যা ও দমন নীতির মাধ্যমে বিরাজনীতিকরণের প্রক্রিয়া শুরু করে একদলীয় শাসন প্রতিষ্ঠায় কাজ করে চলেছে।

মির্জা ফখরুল বলেন, সব অত্যাচার,নির্যাতন উপেক্ষা করে খালেদা জিয়া নির্বাচন কমিশন গঠনে প্রস্তাব তুলে ধরেছেন। বিএনপি প্রত্যাশা করে, রাষ্ট্রপতি সকল রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে স্বাধীন ব্যক্তিদের দিয়ে একটি উপযুক্ত ও নিরপেক্ষ নির্বাচন কমিশন গঠনের উদ্যোগ নেবেন।

তিনি আরও বলেন, সরকার একদিকে রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস অন্যদিকে দলীয় পেটোয়াবাহিনী দিয়ে সন্ত্রাস সৃষ্টি করেছে। তারাই প্রকৃত অপরাধী, তারাই জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসকে প্রশ্রয় দিচ্ছে। আজকে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সামনে পুলিশের উপস্থিতিতে পেটোয়াবাহিনী নামে মুক্তিযুদ্ধের প্রজন্ম লীগের কর্মকান্ড বুঝা যায় কী ধরণের প্রোভোকেশন (উসকানি) দিচ্ছে সরকার।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, বিএনপিকে ধ্বংস ও দুর্বল করার অনেক চেষ্টা করা হয়েছে, পারে নাই, পারবেও না।এমনকি বিএনপিকে ঘিরে কোনো নীল নকশার পরিকল্পনাও বাস্তবায়ন হবে না।

‘বিএনপির জয়ের সম্ভাবনা নাই’ বলে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের সমালোচনায় মির্জা ফখরুল বলেন, ‘উনার (কাদের) বক্তব্যে বুঝা যাচ্ছে তারা নির্বাচনকে নিয়ন্ত্রণ করতে এখন থেকেই পরিকল্পনা করছে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগ সংসদ সদস্য (লিটন) হত্যার ব্যাপারে আমরা প্রত্যাশা করেছিলাম, সুষ্ঠু তদন্ত হবে। দুঃখজনক প্রধানমন্ত্রী এই হত্যাকাণ্ডকে ভিন্নখাতে প্রভাবিত করতে নিজেই উদ্যোগ নিয়েছেন।