ব্রেকিং নিউজ

ভোর ৫:২২ ঢাকা, সোমবার  ২৪শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

বিএনপি চেয়েছিল আমি আত্মহত্যা করি : এরশাদ

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচএম এরশাদ বলেছেন, বিএনপি আমাকে নির্জন কারাবাসে পাঠিয়ে চেয়েছিল আমি আত্মহত্যা করি।
রোববার দুপুরে জেলা শিল্পকলা একাডেমী চত্বরে নড়াইলে জেলা জাতীয় পার্টির সম্মেলনে তিনি এ সব কথা বলেন।
এরশাদ বলেন, জাতীয় পার্টি গণতন্ত্রে বিশ্বাসী। দেশের উন্নয়ন করতে হলে দলকে শক্তিশালী করতে হবে।
তিনি বলেন, দেশে গণতন্ত্র নেই। মানুষ স্বাধীনভাবে কথা বলতে পারছে না, পথ চলতে পারছে না। সঠিকভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠানেরও কোনো পরিবেশ নেই। জাতীয় পার্টিই পারে দেশে গণতন্ত্রের ধারা অব্যহত রাখতে।
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান বলেন, আদালত যুদ্ধাপরাধের সঠিক রায় দিয়েছেন। আদালতের বাইরে যাওয়ার কারো সুযোগ নেই। রায়কে আমি সম্মান করি। রায় সবাইকে মানতে হবে।
বিএনপির সমালেচনা করে তিনি বলেন, বিএনপি প্রতিহিংসার রাজনীতি শুরু করেছে। বিএনপি আমাকে নির্জন কারাবাসে পাঠিয়েছিল। তারা চেয়েছিল আমি আত্মহত্যা করি। কিন্তু আমি বেঁচে আছি। আমার ওপর অনেক অত্যাচার হয়েছে। আল্লাহ এর বিচার করবেন।
জনগণের উদ্দেশে এরশাদ বলেন, জাতীয় পার্টির আমলে দেশে জেলা-উপজেলা, রাস্তাঘাট, ব্রীজসহ দেশের অনেক উন্নতি হয়েছে। আমি সফল সেনাপ্রধান ও রাষ্ট্রনায়ক ছিলাম। আমাকে একবার শেষ সুযোগ দেন। আমাকে সহযোগিতা করেন। দলকে শক্তিশালী করেন।
সম্মেলন বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক শরীফ মুনির হোসেনের সভাপতিত্বে সম্মেলনে জাতীয় পার্টির মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু এমপি, প্রেসিডিয়াম সদস্য সাহিদুর রহমান টেপা, সুনীল শুভ রায়, মীর আবদুস সবুর আসুদ, নির্বাহী সদস্য অশোক কুমার ঘোষ, খন্দকার ফায়েকুজ্জামান ফিরোজ, শেখ ফসিয়ার রহমান, কাজী রঞ্জন, মিল্টন মোল্যা প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।