ব্রেকিং নিউজ

ভোর ৫:৪৬ ঢাকা, শুক্রবার  ২১শে সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

বিএনপির ওপর ছাত্রলীগের হামলা,সংঘর্ষ

বকশিবাজার আলিয়া মাদরাসা মাঠে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালতে বেগম খালেদা জিয়ার হাজিরাকে কেন্দ্র করে বিএনপি-ছাত্রদলের মিছিলে অতর্কিতে হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগ। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ লাঠিচার্জ করে এবং কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি চালায়। এছাড়া কাঁদানে গ্যাস ও জলাকামান ব্যাবহার করে।

বুধবার দুপুর ১২টার দিকে বিএনপির মিছিলে হঠাৎ হামলা চালায় ছাত্রলীগ। ছড়িয়ে পড়ে সংঘর্ষ। চলে ১২টা ২০ মিনিট পর্যন্ত। এ সময় বেশ কয়েকজনকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করা হয়। আহতরা কোনো দলের নাকি সাধারণ নাগরিক তা এখনও জানা যায়নি। ঘটনাস্থলে পুলিশ টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি শান্ত করার চেষ্টা করে। যদিও বিএনপির নেতাকর্মীরা দাবি করেছেন, পুলিশ ছাত্রলীগের পক্ষ হয়েই কাজ করেছে।

জানা গেছে, বুধবার বকশিবাজার আলিয়া মাদরাসা মাঠে স্থাপিত বিশেষ জজ আদালতে বেগম খালেদা জিয়ার হাজিরাকে ঘিরে বিএনপি ও ছাত্রদল সেখানে অবস্থান করে। এসময় তারা বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। পরে ছাত্রলীগও পাল্টা মিছিল নিয়ে সেখানে এসে বিএনপি ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের ওপর অতর্কিতে হামলা চালায়। ছাত্রলীগের মিছিলের নেতৃত্বে ছিলেন ছাত্রলীগ সভাপতি বদিউজ্জামান সোহাগ।

পরে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ শুরু হয়। ছাত্রলীগ কর্মীরা ধাওয়া দিয়ে ছাত্রদল ও বিএনপির বেশ কয়েকজনকে রাস্তায় ফেলে পিটায়। পরে তাদেরকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এর মধ্যে কয়েকজেনের অবস্থা গুরুতর।

আহতদের মধ্যে ঢামেক হাসপাতালে চিকিসাধীন কয়েজনের নাম জানা গেছে। তারা হলেন-সাইদ আলামিন, আকম মোজাম্মেল, জামিল, ইমরান, হাসান, রাজন, জালাল, আরেফিন এবং মিল্লাদ।

এদিকে সংঘর্ষের মধ্যেই আদালতে হাজির হন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।