Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

রাত ২:৫৩ ঢাকা, মঙ্গলবার  ১৩ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

আবুল মাল আব্দুল মুহিত
অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত, ফাইল ফটো

বাজেটে রাজস্ব আদায়ের চ্যালেঞ্জ নিয়েছি : অর্থমন্ত্রী

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) বড় অংকের রাজস্ব আদায়ে প্রস্তুত। আর সেই চ্যালেঞ্জই আমি এই বাজেটে নিয়েছি। সেই চ্যালেঞ্জ সাকসেস করব বলে আমি প্রত্যাশা করছি।
শুক্রবার বিকালে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেট পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা জানান।
অর্থমন্ত্রী বলেন, আমরা সত্যিই যদি অগ্রগতির পথে যেতে চাই, ৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে চাই, তাহলে রাজস্ব আদায় অবশ্যই বাড়াতে হবে।তিনি বলেন, আমাদের রাজস্ব বোর্ডের সক্ষমতা বেড়েছে।জনবল প্রায় দ্বিগুণ করা হয়েছে। আমরা আশাবাদী।
তিনি আরো বলেন, ৭ শতাংশ প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে হলে একটু বাড়তি উদ্যোগ নিতেই হবে। আমার বিশ্বাস বাজেটের লক্ষ্য অনুযায়ী রাজস্ব বাবদ দুই লাখ ৮ হাজার ৪৪৩ কোটি টাকা দিতে জাতি ‘প্রস্তুত আছে’। আর এই বিশাল লক্ষ্য অর্জনে রাজস্ব আদায়কারী সংস্থা এনবিআরও প্রস্তুত রয়েছ।
তিনি বলেন, ২০০৯ সালে আমি যখন প্রথম অর্থমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করি তখন দেশে করদাতার সংখ্যা ছিল ৭ লাখ। এখন তা বেড়ে ১১ লাখে দাঁড়িয়েছে। প্রতিবছরই করদাতার সংখ্যা বাড়ছে।
মন্ত্রী বলেন, আমরা নতুন করদাতা সৃষ্টির উদ্যোগ নিয়েছি, এই করদাতাদর কাছ থেকে অতিরিক্ত রাজস্ব আসবে। এ কথা ঠিক যে এই রাজস্ব আদায়ের জন্য বড় ধরনের ধাক্কা দেওয়া দরকার। এই ধাক্কা দেওয়ার সময় এসেছে এবং আমরা সেই ধাক্কাটিই দিতে চাই।
এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, চিনির ওপর কোন শুল্ক আরোপ করা হয়নি। গ্রাম ও পৌরসভা বা সিটি কর্পোরেশনের এলাকার করের হার ভিন্ন হবে।
কালো টাকা সাদা করা প্রসঙ্গে অর্থমন্ত্রী জানান, জরিমানা দিয়ে অপ্রদর্শিত আয়  বিনিয়োগের সুযোগ থাকছে।
এসময় তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, পরিকল্পনা মন্ত্রী আহম মোস্তফা কামাল, শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুসহ বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্ণর, এনবিআর চেয়ারম্যান ও অর্থসচিবসহ প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে অর্থমন্ত্রী ২০১৫-১৬ অর্থবছরের জন্য ২ লাখ ৯৫ হাজার ১০০ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা করেন।

FOLLOW US: