ব্রেকিং নিউজ

সকাল ৭:১৪ ঢাকা, শনিবার  ১৭ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

জাতিসংঘ
জাতিসংঘ

বাংলাদেশে সাংবাদিকদের স্বাধীনভাবে কাজের পরিবেশ চায় জাতিসংঘ

শুক্রবার জাতিসংঘের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশ পরিস্থিতি নিয়ে বিশেষ করে বাংলাদেশের সাংবাদিকদের স্বাধীনতা নিয়ে কথা বলেছে, ব্রিফিংয়ে  বলা হয় আমরা দেখতে চাই, সরকার যেন এমন পরিবেশ সৃষ্টি করে যাতে আমাদের সাংবাদিকরা স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারে।

জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুনের মুখপাত্র স্টিফেন ডোজারিক এর ওই ব্রিফিংয়ে জুলহাস মান্নানসহ ব্লগারদের হত্যা, বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড, সাংবাদিক শফিক রেহমান- শওকত মাহমুদের কারা নির্যাতন, ফাঁসির দণ্ড কার্যকর, বাংলাদেশ থেকে তুরস্কের রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার ইত্যাদি বিষয় উঠে আসে।

একজন সাংবাদিক স্টিফেন ডোজারিককে প্রশ্ন করেন, গত রোববার নিউইয়র্ক টাইমসে বাংলাদেশের ওপর ‘বাংলাদেশে বিচারহীনতা বিরাজ করছে’ শিরোনামে একটি সম্পাদকীয় প্রকাশিত হয়েছে। আপনি জানেন, দেশটিতে সমকামী সম্পাদক জুলহাস মান্নান হত্যা, ব্লগার হত্যা, বিচারবহির্ভূত হত্যাকাণ্ড এবং সরকারের হয়রানি চলছেই। বিশেষ করে বলতে গেলে, বাংলাদেশের ৮২ বছর বয়সী এক সম্পাদক এবং দেশটির সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতিও জেলে আছেন। বাংলাদেশে এখন এই সবই হচ্ছে। এই বিচারহীনতা থেকে বাংলাদেশকে রক্ষা করতে জাতিসংঘের ভূমিকা কী?

এই প্রশ্নের জবাবে মুখপাত্র বলেন, বাংলাদেশে জাতিসংঘ মহাসচিবসহ সাংবাদিক ও ব্লগারদের বিরুদ্ধে চলমান এই সহিংস পরিস্থিতির বিরুদ্ধে অনেক মানবাধিকার সংগঠন তাদের উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। তাছাড়া, সম্প্রতি যে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হলো সেটাও আমরা দেখেছি। আমরা দেখতে চাই, দেশটির সরকার যেন এমন পরিবেশ সৃষ্টি করে যাতে আমাদের সাংবাদিকরা স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারে।

সাংবাদিক ডোজারিককে আরেকটি প্রশ্নে বলেন, গণমাধ্যমে প্রকাশ হয়েছে যে, সম্প্রতি মৃত্যুদণ্ডাদেশকে অবিচার উল্লেখ্য করে তুরস্ক বাংলাদেশ থেকে তাদের রাষ্ট্রদূত প্রত্যাহার করে নিয়েছে। এই ব্যাপারে আপনার মন্তব্য কী?

মুখপাত্র বলেন, এটা বাংলাদেশ ও তুরস্কের আভ্যন্তরীণ ব্যাপার।