ব্রেকিং নিউজ

বিকাল ৪:৪৯ ঢাকা, মঙ্গলবার  ১৬ই অক্টোবর ২০১৮ ইং

বাংলাদেশে এসেছেন লতিফ সিদ্দিকী !

গ্রেপ্তারি পরোয়ানা মাথায় নিয়েই দেশে ফিরলেন সাবেক মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত নেতা আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী। আজ রাতে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান তিনি। বর্তমানে সেখানেই ভিআইপি লাউঞ্জে অবস্থান করছেন। তিনি নয়াদিল্লি থেকে এসেছে বলে জানা গেছে। জানা যায়, রাত ৮টা ৫০ মিনিটে এয়ার ইন্ডিয়ার একটি ফ্লাইটে বিমানবন্দরে অবতরণ করেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত ২৮ সেপ্টেম্বর নিউইয়র্কের জ্যাকসন হাইটসের একটি হোটেলে নিউইয়র্কে বসবাসরত টাঙ্গাইলবাসীর সঙ্গে মতবিনিময় করেন লতিফ সিদ্দিকী। এসময় তিনি বলেন, ‘আব্দুল্লাহর পুত্র মোহাম্মদ চিন্তা করলো এ জাজিরাতুল আরবের লোকেরা কীভাবে চলবে? তারাতো ছিল ডাকাত। তখন সে একটা ব্যবস্থা করলো যে আমার অনুসারীরা প্রতিবছর একবার একসঙ্গে মিলিত হবে। এর মধ্য দিয়ে একটা আয়-ইনকামের ব্যবস্থা হবে।’

তিনি বলেন, ‘আমি হজ আর তাবলীগ জামাতের ঘোরতর বিরোধী, জামায়াতে ইসলামীরও বিরোধী, তবে তার চেয়েও বেশি হজ ও তাবলীগ জামাতের। হজ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের এ প্রবীণ নেতা আরো বলেন, ‘হজের জন্য ২০ লাখ লোক সৌদি আরবে গিয়েছে। এদের কোনো কাম নাই। এদের কোনো প্রডাকশন নাই। শুধু রিডাকশন দিচ্ছে। শুধু খাচ্ছে আর দেশের টাকা দিয়ে আসছে।’

এ সময় তাবলীগ জামাতের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘তাবলীগ জামাত প্রতিবছর ২০ লাখ লোকের জমায়েত করে। নিজেদেরতো কোনো কাজ নেই। সারা দেশের গাড়িঘোড়া তারা বন্ধ করে দেয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়কে নিয়েও বিরূপ মন্তব্য করেন তিনি।

এর পরই দেশে-বিদেশে ব্যাপক তোপের মুখে পড়েন লতিফ সিদ্দিকী। সারা দেশে বিভিন্ন আদালতে তার বিরুদ্ধে ধর্ম অবমাননার মামলা হয় এবং বেশক’টি আদালত তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা ও সমন জারি করেন। পরে তাকে মন্ত্রিসভা এবং দল থেকে বহিষ্কার করা হয়।

হজ ও তাবলীগ জামায়াত নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করায় দেশের বিভিন্ন আদালতে তিন ডজনের মতো মামলা হয় তার বিরুদ্ধে। এসব মামলায় ডজনখানেক গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি আছে। এসব পরোয়ানা মাথায় নিয়েই তিনি  দেশে ফিরলেন।

Like & share করে অন্যকে দেখার সুযোগ দিন