Sheersha Media

ব্রেকিং নিউজ

সন্ধ্যা ৬:৪৪ ঢাকা, শনিবার  ১৭ই নভেম্বর ২০১৮ ইং

‘বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্প শীর্ষস্থান দখল করবে’

জাতিসংঘের বাণিজ্য ও উন্নয়ন বিষয়ক সংস্থার (আঙ্কটাড) মহাসচিব ড. মুখিসা কিটুই বলেছেন, বাংলাদেশের উদীয়মান তৈরি পোশাক শিল্প অচিরেই বিশ্বের শীর্ষস্থান দখল করবে।

তিনি বলেন, তৈরি পোশাক শিল্প খাতে বাংলাদেশের অগ্রগতির দৃষ্টান্ত বিশ্বের যে কোনো দেশের জন্য অনুকরণীয়।

কেনিয়া সফররত শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমুর সাথে বৈঠককালে মঙ্গলবার আঙ্কটাডের মহাসচিব এ কথা বলেন।

নাইরোবীর কেনিয়া ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সেন্টারে গতকাল মঙ্গলবার শিল্পমন্ত্রীর সাথে আঙ্কটাড মহাসচিবের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে বাংলাদেশসহ স্বল্পোন্নত দেশগুলোর শিল্পায়ন ও বিনিয়োগ প্রবাহ বাড়াতে আঙ্কটাডের সহায়তা জোরদারের বিষয়ে আলোচনা হয়। এ সময় বাংলাদেশের উদীয়মান চামড়া, প্লাস্টিক ও ওষুধ শিল্পের উন্নয়নের পাশাপাশি কেনিয়ায় বাংলাদেশি দক্ষ শ্রমিক আমদানির বিষয়ে আলোচনা হয়।

বৈঠকে আঙ্কটাডের মহাসচিব বাংলাদেশের চামড়া, প্লাস্টিক ও ওষুধ শিল্পের অগ্রগতির ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, এ তিনটি শিল্পখাতে বাংলাদেশের অর্জন বিশ্বের অন্য দেশের জন্য রোলমডেল হতে পারে। বিশ্ব বাণিজ্যিক নেতৃবৃন্দের অবগতির জন্য এ তথ্য ওয়ার্ল্ড ইনভেস্টমেন্ট ফোরামের সমাপনী অধিবেশনে তুলে ধরবেন বলে তিনি শিল্পমন্ত্রীকে অবহিত করেন।

তিনি জানান, পাশাপাশি এসব শিল্পসহ সামগ্রিক শিল্পখাতের অগ্রগতি সম্পর্কে অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য আঙ্কটাডের একটি প্রতিনিধিদল শিগগিরই বাংলাদেশ সফর করবে।

আঙ্কটাডের মহাসচিব বলেন, কেনিয়ায় এখনও প্রচুর পরিমাণে অব্যবহৃত জমি রয়েছে। এসব জমিতে তুলা চাষ করে সুতা উৎপাদনের সুযোগ রয়েছে। তুলা থেকে সুতা উৎপাদনের লক্ষ্যে তিনি বাংলাদেশ থেকে দক্ষ তুলা চাষি ও অভিজ্ঞ শ্রমিক আমদানির বিষয়ে শিল্পমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। তিনি আশা প্রকাশ করেন এর মাধ্যমে কেনিয়ায় তুলা ও সুতা উৎপাদন খাতে দক্ষতা ও অভিজ্ঞতা স্থানান্তরের সুযোগ তৈরি হবে।

শিল্পমন্ত্রী আমির হোসেন আমু বলেন, বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্প ইতোমধ্যে বিশ্বে দ্বিতীয় স্থান দখল করেছে। সরকারি পৃষ্ঠপোষকতা, উদ্যোক্তাদের দক্ষতা এবং মনোবলের কারণে বিশ্বমন্দার মাঝেও বাংলাদেশের তৈরি পোশাক শিল্পে ইতিবাচক প্রবৃদ্ধির ধারা অব্যাহত রয়েছে।

তিনি বাংলাদেশ থেকে দক্ষ তুলা চাষি ও শ্রমিক আমদানির বিষয়ে আঙ্কটাড মহাসচিবের প্রস্তাবকে স্বাগত জানান। এ বিষয়ে কেনিয়া সরকারের আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব পেলে বাংলাদেশ প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

বৈঠকে শিল্পমন্ত্রী আঙ্কটাড মহাসচিবকে বাংলাদেশ সফরের আমন্ত্রণ জানান। জবাবে আঙ্কটাড মহাসচিব খুব শিগগিরই দ্বিতীয়বারের মতো বাংলাদেশ সফরে আসবেন বলে শিল্পমন্ত্রীকে অবহিত করেন।

শিল্প মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা বলা হয়।